বাড়ি > বাংলার মুখ > কলকাতা > কলকাতা থেকে সোজা হংকং, ক্যুরিয়ারে পাচার পুতুলে ভরা চরস, গ্রেফতার ৩
এতেই পাচার করা হচ্ছিল চরস। ছবি সৌজন্যে : টুইটার
এতেই পাচার করা হচ্ছিল চরস। ছবি সৌজন্যে : টুইটার

কলকাতা থেকে সোজা হংকং, ক্যুরিয়ারে পাচার পুতুলে ভরা চরস, গ্রেফতার ৩

  • উইন্ড চিমের মতো দেখতে দুটি ঘর সাজানোর শৌখিন জিনিস থেকে পাওয়া গিয়েছে কয়েক লাখ টাকার ওই মাদক। ছোট ছোট নানা রঙের পুতুল ছিল মাদকে ভরা।

সুশান্ত মামলার সঙ্গে জড়িত মাদককাণ্ডে এনসিবি–র হাতে গ্রেফতার হয়েছেন বলিউড অভিনেত্রী রিয়া চক্রবর্তী, শৌভিক–সহ ৬ জন। শুক্রবার তাঁদের জামিনের আবেদন খারিজ করেছে সেশন কোর্ট। এই নিয়ে তোলপাড় গোটা দেশ। তার মধ্যেই কলকাতা শহরে ধরা পড়ল এক আন্তর্জাতিক মাদক চক্রের মূল পান্ডা–সহ ৩ মাদক কারবারি।

খাস কলকাতা থেকে সোজা চীনের হংকংয়ে প্রায় ১২ কেজি চরস পাচার করার আগেই তা ধরা পড়ল নার্কোটিক কন্ট্রোল ব্যুরোর গোয়েন্দাদের হাতে। কিন্তু মাদক পাচারের অভিনব উপায় দেখে অবাক গোয়েন্দারা। উইন্ড চিমের মতো দেখতে দুটি ঘর সাজানোর শৌখিন জিনিস থেকে পাওয়া গিয়েছে কয়েক লাখ টাকার ওই মাদক। ছোট ছোট নানা রঙের পুতুল ছিল মাদকে ভরা। বুধবার একটি ক্যুরিয়ার সংস্থার দফতর থেকে এটি উদ্ধার করে এনসিপি। এ পরই মাদক কারবারীদের খোঁজে শুরু হয় তদন্ত।

বৃহস্পতিবার দমদম ও দুর্গানগর এলাকা থেকে এই মাদক চক্রের মূল পান্ডা রাজন মিশ্র ও মাদক কারবারী অসীম রায়কে গ্রেফতার করেন তদন্তকারীরা। তারা জেরায় জানিয়েছে, মাঝেমধ্যেই এমন মাদক বোঝাই পার্সেল তারা হংকংয়ে পাঠায়। রাজন মিশ্রর বাড়ি থেকে আরও ১০০ গ্রাম চরস ও ২০টি কোডিন সিরাপ (‌মাদক হিসেবে ব্যবহৃত কাশির সিরাপ)‌ উদ্ধার করে পুলিশ।

তাদের জেরা করে আর এক মাদক কারবারীর সন্ধান মেলে। মানিকপাড়া এলাকার বাসিন্দা বিশ্বনাথ দাস নামে ওই কারবারীকে গ্রেফতার করে পুলিশ। তার বাড়ি থেকে উইনকিরেক্স নামে ৯৫টি কোডিন কাশির সিরাপের বোতল বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। ধৃত বিশ্বনাথ জানিয়েছে, তার ওষুধের দোকানে ব্যবসা ভাল না হওয়ায় এই বেআইনি কাজ করে কিছু অতিরিক্ত রোজগার করত সে।

বন্ধ করুন