বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > প্রয়াত নেতাজির ভাতুষ্পুত্রী চিত্রা ঘোষ, শোক জ্ঞাপণ করলেন প্রধানমন্ত্রী
প্রয়াত চিত্রা ঘোষ
প্রয়াত চিত্রা ঘোষ

প্রয়াত নেতাজির ভাতুষ্পুত্রী চিত্রা ঘোষ, শোক জ্ঞাপণ করলেন প্রধানমন্ত্রী

  • নেতাজির ভাই শরৎচন্দ্র বসুর কন্যা ও স্থপতি সুবিমল ঘোষের স্ত্রী চিত্রাদেবী যৌবন থেকেই রাজনীতি ও সমাজসেবায় সক্রিয়। ফরওয়ার্ড ব্লকে একাধিক গুরুত্বপূর্ণ পদে ছিলেন তিনি।

প্রয়াত নেতাজি সুভাষ চন্দ্র বসুর ভাইঝি চিত্রা বসু। বৃহস্পতিবার সকালে কলকাতার বাসভবনে মৃত্যু হয় তাঁর। বয়স হয়েছিল ৯০ বছর। তাঁর প্রয়াণে শুক্রবার শোক জ্ঞাপণ করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। চিত্রা বসু ছিলেন হাতে গোনা জীবিত ব্যক্তিত্বদের মধ্যে একজন, যাঁর সঙ্গে নেতাজির সরাসরি সাক্ষাৎ হয়েছিল। 

লেডি ব্রেবোর্ন কলেজের প্রাক্তন বিভাগীয় প্রধান চিত্রাদেবী বেশ কিছুদিন ধরে বার্ধক্যজনিত নানা জটিলতায় ভুগছিলেন। বৃহস্পতিবার সকালে বাসভবনেই তাঁর মৃত্যু হয় বলে জানিয়েছেন পরিজনরা। সন্ধ্যায় তাঁকে শেষ শ্রদ্ধা জানানোর জন্য দেহ নিয়ে যাওয়া হয় বসু পরিবারের পুরনো বাড়িতে। 

নেতাজির ভাই শরৎচন্দ্র বসুর কন্যা ও স্থপতি সুবিমল ঘোষের স্ত্রী চিত্রাদেবী যৌবন থেকেই রাজনীতি ও সমাজসেবায় সক্রিয়। ফরওয়ার্ড ব্লকে একাধিক গুরুত্বপূর্ণ পদে ছিলেন তিনি। ১৯৯৮ সালে বারাসত লোকসভা কেন্দ্র থেকে দলীয় প্রার্থী হন । তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী চিকিৎসক রণজিৎ পাঁজার কাছে পরাজিত হন তিনি। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ক্যাওড়াতলা শ্মশানে তাঁর শেষকৃত্য হয়। 

নেতাজি সংক্রান্ত নথি প্রকাশের ব্যাপারে সরকারকে নানা সহযোগিতা করেছেন চিত্রা দেবী। এমনকী সম্প্রতি তিনি নেতাজির চিতাভস্মের ডিএনএ পরীক্ষার দাবিতে প্রধানমন্ত্রীকে চিঠিও দেন। 

তাঁর প্রয়াণে শোক জ্ঞাপণ করে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী টুইটারে লিখেছেন, ‘সমাজসেবা ও শিক্ষায় গগনচুম্বী অবদান রেখেছেন অধ্যাপক চিত্রা ঘোষ। তাঁর সঙ্গে আমার সাক্ষাতের মুহূর্ত স্মরণে আসছে। নেতাজি সংক্রান্ত ফাইল প্রকাশ্যে আনা নিয়ে আমাদের মধ্যে নানা আলোচনা হয়েছিল। তাঁর প্রয়াণে শোকাহত। পরিবারকে সমবেদনা জানাই।’

 

বন্ধ করুন