বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > Blue-White Auto: নীল–সাদা পরিবেশবান্ধব অটো নামল শহবে, একুশে জুলাইয়ের আগে বড় চমক
শহরে নীল–সাদা অটো যাত্রা শুরু করল।

Blue-White Auto: নীল–সাদা পরিবেশবান্ধব অটো নামল শহবে, একুশে জুলাইয়ের আগে বড় চমক

  • এই নীল–সাদা রংয়ের অটো বের করার পিছনে কয়েকটি কারণ আছে। এক, এই রং মুখ্যমন্ত্রীর পছন্দ। দুই, এটা অন্যান্য অটোর থেকে আলাদা বোঝা যাবে। তিন, জ্বালানিতে চলা অটো থেকে কার্বন নির্গত হয়। এক্ষেত্রে তা হবে না। এই অটো পরিবেশবান্ধব হওয়ায় পেট্রল–ডিজেল লাগে না। ফলে পেট্রপণ্যের গাম বাড়া–কমার উপর কিছু যায় আসে না।

একুশে জুলাইয়ের শহিদ সমাবেশের ঠিক আগের দিন শহরে নীল–সাদা অটো যাত্রা শুরু করল। এই রং পছন্দ করেন খোদ মুখ্যমন্ত্রী। নবান্ন থেকে শহরের আনাচে–কানাচে এই বং দেখা যায়। এমনকী এই রংয়ের বাতি পর্যন্ত লাগানো রয়েছে মা উড়ালপুলে। এবার নীল–সাদা রংয়ের অটোর অধ্যায় শুরু হল কলকাতায়। আজ, বুধবার দুটো নীল–সাদা অটো কলকাতায় যাত্রা শুরু করল। নতুন ব্যাটারিচালিত পরিবেশবান্ধব ই–অটো চালালেন পরিবহনমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম।

ঠিক কী বলেছেন পরিবহণমন্ত্রী?‌ এই নীল–সাদা ই–অটো নিয়ে ফিরহাদ হাকিম বলেন, ‘‌হরিয়ানায় তৈরি হয়েছে এই লিথিয়াম ব্যাটারি চালিত অটো। এই লিথিয়াম ব্যাটারি তৈরি হয়েছে সিঙ্গুরের হিমাদ্রি কেমিক্যাল কারখানায়। সুতরাং পুরনো অটো থেকে এই অটো অনেকটাই যাত্রী স্বাচ্ছন্দ্যে কাজে আসবে। এই অটোর পিছনের বসার আসন আগের থেকে বড়। তাই এই অটোয় সফরও আরামদায়ক।

কেন অটোর রং নীল–সাদা?‌ এই নীল–সাদা রংয়ের অটো বের করার পিছনে কয়েকটি কারণ আছে। এক, এই রং মুখ্যমন্ত্রীর পছন্দ। দুই, এটা অন্যান্য অটোর থেকে আলাদা বোঝা যাবে। তিন, জ্বালানিতে চলা অটো থেকে কার্বন নির্গত হয়। এক্ষেত্রে তা হবে না। এই অটো পরিবেশবান্ধব হওয়ায় পেট্রল–ডিজেল লাগে না। ফলে পেট্রপণ্যের গাম বাড়া–কমার উপর কিছু যায় আসে না।

আর কী জানা যাচ্ছে?‌ এই নীল–সাদা রংয়ের ই–অটো স্বল্প সুদের ঋণে কেনা যাবে। এই অটোতে মিলবে বৈধ পারমিট। পরিবহনমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম বলেন, ‘‌এই অটো পরীক্ষামূলকভাবে আপাতত শহরের উত্তর ও দক্ষিণ অংশে দুটি চলবে। তারপর নির্মাতা সংস্থার কাছে টেন্ডার পাঠাবে শহরের অটো বিক্রয়কারী ডিলাররা। সেখানে এসে গেলে ধাপে ধাপে সবাই কিনে ফেলবে।’‌

বন্ধ করুন