বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > Newtown Accident: নিউটাউনে ছাত্র মৃত্যুতে ঘাতক গাড়ির সন্ধান, গ্রেফতার অভিযুক্ত

Newtown Accident: নিউটাউনে ছাত্র মৃত্যুতে ঘাতক গাড়ির সন্ধান, গ্রেফতার অভিযুক্ত

নিউটাউনে দুর্ঘটনায় ছাত্র মৃত্যুর ঘটনাকে কেন্দ্র করে অবরোধ আন্দোলনকারীদের। 

পরিবারের একমাত্র সন্তান ওই মেধাবী পড়ুয়ার মৃত্যুকে মেনে নিতে পারছেন না কেউই। পিএইচডি করার স্বপ্ন দেখতেন ওই ছাত্র। কিন্তু গাড়ি দুর্ঘটনা কেড়ে নিল পরিবারের সব স্বপ্ন। একেবারে দিনমজুর পরিবারের সন্তান ছিলেন তিনি।

অবশেষে নিউটাউনে ছাত্র মৃত্যুর ঘটনায় মূল অভিযুক্ত প্রতীন খাঁড়াকে গ্রেফতার করল পুলিশ। তিনি একটি সংবাদপত্রে ছাপাখানার ম্যানেজিং ডিরেক্টর। গোপন সূত্রে খবর পেয়ে পুলিশ তাকে পাকড়াও করে।

নিউটাউনে আলিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের কাছে বেপরোয়া গাড়ির ধাক্কায় মৃত্যু হয়েছিল এক ছাত্রের। এদিকে চালক সহ ঘাতক গাড়িটিকে বাজেয়াপ্ত করার দাবিতে রবিবার থেকে আন্দোলনে নেমেছিলেন পড়ুয়ারা। এদিকে পুলিশের দাবি, ওই ঘাতক গাড়ির সন্ধান মিলেছে। তবে আন্দোলনকারী পড়ুয়াদের পালটা দাবি, গাড়ির চালকের নাম প্রকাশ করা হচ্ছে না। সিসি ক্যামেরার ফুটেজও দেওয়া হচ্ছে না। পুলিশ বিভ্রান্তিকর কথাবার্তা বলছে।

এদিন পুলিশ কর্তারা গিয়ে আন্দোলনকারীদের জানিয়ে দেন, রুবিতে টয়োটার শোরুম আছে। সেখানে মেরামতির জন্য গাড়়িটি কেউ হ্যান্ডওভার করতে এসেছিল। আমরা তাকে আটক করেছি। আমরা গাড়ি পেয়ে গিয়েছি। গাড়ির মালিককে আমরা গ্রেফতার করব। এদিকে আন্দোলনকারীদের দাবি, এই দুর্ঘটনার পেছনে প্রভাবশালী কেউ রয়েছে। সেকারণে পুলিশ চালক আর মালিকের নাম প্রকাশ করতে চাইছে না।

এদিকে আলিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রের মৃত্যুকে কেন্দ্র করে ছাত্রছাত্রীদের মধ্যে শোরগোল পড়ে যায়। চালক সহ ঘাতক গাড়িটিকে ধরার জন্য দাবি করতে থাকেন পড়ুয়ারা। পরিবারের একমাত্র সন্তান ওই মেধাবী পড়ুয়ার এই মৃত্যুকে মেনে নিতে পারছেন না কেউই। পিএইচডি করার স্বপ্ন দেখতেন ওই ছাত্র। কিন্তু গাড়ি দুর্ঘটনা কেড়ে নিল পরিবারের সব স্বপ্ন। একেবারে দিনমজুর পরিবারের সন্তান ছিলেন তিনি।

পরিবারের দাবি সে নিরাপদ জোনে দাঁড়িয়েছিল। তারপরেও কীভাবে দুর্ঘটনা হতে পারে? তাকে খুন করা হতে পারে বলেও সন্দেহ দানা বাঁধছে। তাঁদের দাবি, ঘাতক গাড়ি ও চালককে গ্রেফতার করতে হবে। পুলিশ নানা বিভ্রান্তিকর কথা বলছে। মৃত ছাত্রের পরিবারের দাবি, প্রশাসনের কেউ আমাদের সঙ্গে যোগাযোগ করেনি। ওই সন্তানই আমার সম্বল ছিল। ছেলে ৫ জানুয়ারি আসবে বলেছিল। শেষবার কথা বলেছিল। তারপর আর ছেলে ফিরল না।

পুলিশ প্রতীন খাঁড়া ও আলি নামে দুজনের কথা উল্লেখ করেছিল। পরে অবশ্য রাতে প্রতীনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। 

বছরের প্রথম দিনে মর্মান্তিক দুর্ঘটনা হয়েছিল কলকাতার নিউটাউনে। নিউটাউনে আলিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র ছিলেন তিনি। ১লা জানুয়ারি সন্ধ্যায় বেপরোয়া গাড়ি পিষে দিয়েছিল তাকে। অন্যান্য় পড়ুয়াদের দাবি, প্রায় ১৫ মিনিট তিনি রাস্তার পাশে রক্তাক্ত অবস্থায় পড়েছিলেন। তখনও পুলিশ আসেনি। এরপর পুলিশ এসে দেহটি উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানেই তাকে মৃত বলে ঘোষণা করা হয়। মৃতের নাম শাকিল আহম্মদ। তিনি আলিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূগোল বিভাগের ছাত্র ছিলেন।

স্থানীয় সূত্রে খবর, এদিন বিকালে তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের কাছেই সার্ভিস রোড ধরে হাঁটছিলেন। তিনি বিকাল সাড়ে চারটে নাগাদ ইউনিভার্সিটি থেকে বেরিয়ে বাড়ি ফেরার জন্য ইকোস্পেসের দিকে যাচ্ছিলেন। সেই কদমপুকুর মোড়ের দিক থেকে একটি গাড়ি বেপরোয়াভাবে চলে আসে। এরপরই তাকে ধাক্কা মেরে চম্পট দেয় গাড়িটি।

 

বন্ধ করুন