বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > ‘ভুয়ো মামলায়’ গ্রেফতার করা যাবে না কৈলাস, মুকুলদের, সুপ্রিম স্বস্তি গেরুয়া শিবিরে
মুকুল রায় ও কৈলাস বিজয়বর্গীয়। ফাইল ছবি
মুকুল রায় ও কৈলাস বিজয়বর্গীয়। ফাইল ছবি

‘ভুয়ো মামলায়’ গ্রেফতার করা যাবে না কৈলাস, মুকুলদের, সুপ্রিম স্বস্তি গেরুয়া শিবিরে

  • রাজ্যের বিভিন্ন থানায় যাঁদের বিরুদ্ধে ১০০টিরও বেশি মামলা বিচারাধীন রয়েছে তাঁরা হলেন কৈলাস বিজয়বর্গীয়, মুকুল রায়, অর্জুন সিং, পবন সিং এবং সৌরভ সিং। তার মধ্যে বেশিরভাগ মামলাই জামিন অযোগ্য।

‌সুপ্রিম কোর্টে বড়সড় স্বস্তি পেলেন কৈলাস বিজয়বর্গীয়, মুকুল রায়রা। পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন থানায় শতাধিক মামলায় অভিযুক্ত বিজেপি–র পাঁচ নেতাকে গ্রেফতার করা যাবে না বলেই শুক্রবার নির্দেশ দিল সু্প্রিম কোর্ট। এ সব মামলার বিরুদ্ধে প্রথমে কলকাতা হাইকোর্টে পাল্টা মামলা দায়ের করে বিজেপি। কিন্তু সেখানে কোনও লাভ না হওয়ায় সম্প্রতি সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হন বিজেপি–র পশ্চিমবঙ্গের সহ পর্যবেক্ষক অরবিন্দ মেনন। সেই মামলার শুনানিতেই এদিন জানানো হয়েছে যে পরবর্তী শুনানির আগে পর্যন্ত ওই পাঁচ বিজেপি নেতাকে গ্রেফতার করা যাবে না।

রাজ্যের বিভিন্ন থানায় যাঁদের বিরুদ্ধে ১০০টিরও বেশি মামলা বিচারাধীন রয়েছে তাঁরা হলেন কৈলাস বিজয়বর্গীয়, মুকুল রায়, অর্জুন সিং, পবন সিং এবং সৌরভ সিং। তার মধ্যে বেশিরভাগ মামলাই জামিন অযোগ্য। গেরুয়া শিবিরের অভিযোগ, এই মামলাগুলি তাদের দমানোর জন্য রাজ্য প্রশাসন ও রাজ্য পুলিশ উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে দায়ের করেছে। তাই এই মামলা থেকে অব্যাহতি চেয়ে প্রথমে কলকাতা হাইকোর্ট ও শেষে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয় বিজেপি। অভিযোগে জানানো হয়, রাজনৈতিক প্রতিহিংসার জেরে শতাধিক ভুয়ো মামলা দায়ের করা হয়েছে বিজেপি নেতাদের বিরুদ্ধে। বিজেপি সুপ্রিম কোর্টে আবেদন জানায় যে এই সব মামলার নিরপেক্ষ তদন্ত করার ক্ষেত্রে সিবিআইকে হস্তান্তর করা হোক মামলাগুলি।

শুক্রবার বিচারপতি সঞ্জয় কিষাণ কলের বেঞ্চে সেই মামলারই শুনানি হয়। এদিন এই মামলার পরিপ্রেক্ষিতে রাজ্য সরকারকে নোটিশ ইস্যু করার নির্দেশ দিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট। এই সব মামলা ও বিজেপি–র অভিযোগ নিয়ে রাজ্য সরকারের কী বক্তব্য নোটিশে তা জানতে চাওয়া হয়েছে। জানা গিয়েছে, এই মামলার পরবর্তী শুনানি শীতের ছুটির দু’‌সপ্তাহ পরে হবে। আর তার আগে পর্যন্ত মামলায় অভিযুক্ত কৈলাস বিজয়বর্গীয়–সহ ৫ নেতাকে গ্রেফতার বা তাঁদের বিরুদ্ধে গ্রেফতারির মতো কড়া পদক্ষেপ করা যাবে না বলে নির্দেশ দিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট।

এদিন এ প্রসঙ্গে বিজেপি–র সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক কৈলাস বিজয়বর্গীয় বললেন, ‘‌আমি মনে করি, পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকারের গালে এটা একটা বড়সড় চড়। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের রাজত্বে ন্যায় আশা করা সম্ভব নয়। তাই আমরা সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হই। মুকুলদা, অর্জুন সিং আর আমার ওপর যে সব মিথ্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে তা আপাতত স্থগিত রাখা হয়েছে। অনেকটাই স্বস্তি পেলাম। কারণ, আমরা ভয় পাচ্ছিলাম, যখন–তখন মমতা পুলিশ পাঠিয়ে আমাদের গ্রেফতার করে জেলে পুড়বে। নির্বাচনের আগে পর্যন্ত হয়তো জামিনও পেতাম না। এখন অনেকটা নিশ্চিন্ত হলাম।’‌

বন্ধ করুন