বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > দলের ওপরে কেউ নয়, শুভেন্দুকে নিয়ে প্রশ্নে জবাব কাকলির
শুক্রবার তৃণমূল ভবনের সাংবাদিক বৈঠকে কাকলি ঘোষদস্তিদার
শুক্রবার তৃণমূল ভবনের সাংবাদিক বৈঠকে কাকলি ঘোষদস্তিদার

দলের ওপরে কেউ নয়, শুভেন্দুকে নিয়ে প্রশ্নে জবাব কাকলির

  • একই সঙ্গে রাজ্যের একাধিক বিধায়ক তাদের দলের যোগ দিতে চলেছেন বলে বিজেপির তরফে যে দাবি করা হয়েছে তাকেও কটাক্ষ করেন কাকলিদেবী।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বার্তা মেনে শুভেন্দু পর্বের ইতি ঘটিয়ে সামনের দিকে এগনোর বার্তা দিল তৃণমূল কংগ্রেস। শুক্রবার তৃণমূল ভবনে দৈনিক সাংবাদিক বৈঠকে এমনই বার্তা দেন দলের সাংসদ কাকলি ঘোষ দস্তিদার। শুভেন্দুর সঙ্গে রফা প্রসঙ্গে প্রশ্ন করা হলে কার্যত এড়িয়ে যান তিনি। 

এদিন কাকলিদেবীকে সাংবাদিকদের তরফে প্রশ্ন করা হয়, শুভেন্দু অধিকারীর সঙ্গে ভবিষ্যতে তৃণমূলের আলোচনার সম্ভাবনা কতটা। জাবাবে বারাসতের সাংসদ বলেন, ‘দলের ওপরে কেউ নয়। পোক্ত জমির ওপরে দাঁড়িয়ে থাকা একজন জননেত্রীর তৈরি দল হল তৃণমূল কংগ্রেস। দলের বাইরে কেউ এমন নেই যে তার কথা আমাকে এখানে বলতে হবে’।

একই সঙ্গে রাজ্যের একাধিক বিধায়ক তাদের দলের যোগ দিতে চলেছেন বলে বিজেপির তরফে যে দাবি করা হয়েছে তাকেও কটাক্ষ করেন কাকলিদেবী। বলেন, ‘দীর্ঘদিন ধরে বিজেপি এসব বলে বিভ্রান্তি তৈরির চেষ্টা করছে। সাধারণ মানুষ অত বোকা নয়। তারা বিজেপির চালাকি বোঝেন।’

গত বুধবার দুপুরে সৌগত রায়কে মেসেজ করে শুভেন্দু জানান, ‘আপনাদের সঙ্গে কাজ করা মুশকিল।’ এর পরই শুভেন্দুর আশা ছেড়ে ঘর গোছানো শুরু করে তৃণমূল। দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বার্তা দেন, শুভেন্দুকে নিয়ে আর কোনও উৎসাহ দেখাবে না দল। বৃহস্পতিবার তৃণমূলের সরকারি কর্মচারী সংগঠনের মেন্টর পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হয় শুভেন্দুকে। আগেই মন্ত্রিত্ব থেকে পদত্যাগ করেছেন শুভেন্দু। তার পর থেকেই তাঁর তৃণমূল ছাড়া নিয়ে জল্পনা চলছে।

 

বন্ধ করুন