বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > Calcutta University: উপাচার্যের বিরুদ্ধে অশালীন পোস্ট, ব্যবস্থা নেওয়ার হুঁশিয়ারি
কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য সোনালী চক্রবর্তী বন্দ্যোপাধ্যায়।

Calcutta University: উপাচার্যের বিরুদ্ধে অশালীন পোস্ট, ব্যবস্থা নেওয়ার হুঁশিয়ারি

  • সোশ্যাল মিডিয়ায় সোনালী চক্রবর্তীর বিরুদ্ধে অশালীন মন্তব্য করা হয়েছে। এমনকি তাকে গালিগালাজও করা হয়েছে। একজন উপাচার্যের বিরুদ্ধে এই সমস্ত পোস্টকে অসম্মানজনক বলেই মনে করা হচ্ছে।

অনলাইনে পরীক্ষার দাবিতে আন্দোলন করছেন কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়ারা। তাদের বক্তব্য, স্নাতক এবং স্নাতকোত্তরের পরীক্ষা অনলাইনে নিতে হবে। যদিও অফলাইনে পরীক্ষা নেওয়ার সিদ্ধান্তে অনড় রয়েছেন কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। তবে অনলাইনে পরীক্ষার দাবি জানাতে গিয়ে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য সোনালী চক্রবর্তী বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে অশালীন মন্তব্য করার অভিযোগ উঠেছে। বিষয়টি জানার পরেই প্রচণ্ড ক্ষুব্ধ উপাচার্য সোনালী চক্রবর্তী বন্দ্যোপাধ্যায়।

জানা গিয়েছে, সোশ্যাল মিডিয়ায় সোনালী চক্রবর্তীর বিরুদ্ধে অশালীন মন্তব্য করা হয়েছে। এমনকি তাকে গালিগালাজও করা হয়েছে। একজন উপাচার্যের বিরুদ্ধে এই সমস্ত পোস্টকে অসম্মানজনক বলেই মনে করা হচ্ছে। উপাচার্য সোনালী চক্রবর্তী এই পোস্টগুলি তিনি দেখতে পান কয়েকজন মানুষের কাছে। এই পোস্টগুলি দেখতে পাওয়ার পরেই বেজায় ক্ষুব্ধ হয়েছেন তিনি। সোনালী চক্রবর্তীর স্পষ্ট বার্তা, একজন উপাচার্যকে লক্ষ্য করে যে বা যারা এই পোস্টগুলি করেছেন তাদের কোনওভাবে ক্ষমা করা হবে না। তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন তিনি।

শুধু উপাচার্যই নন, বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপকরাও এই সমস্ত পোস্ট নিয়ে সমালোচনায় সরব হয়েছেন। উপাচার্যের বক্তব্য, অফলাইনে পরীক্ষা নেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে সর্বসম্মতভাবে। সমস্ত ফ্যাকাল্টি কাউন্সিলের সদস্য, ইউজিসি বোর্ড অফ স্টাডিজের চেয়ারপার্সন এবং অধ্যক্ষদের সম্মিলিত আলোচনার মাধ্যমে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। অথচ পড়ুয়ারা এই সিদ্ধান্তের জন্য একা উপাচার্যকে দায়ী করে তাঁর বিরুদ্ধে অশালীন মন্তব্য করছেন। নির্দিষ্টভাবে শুধুমাত্র তাকেই গালিগালাজ করা হচ্ছে। এর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে তিনি জানিয়েছেন।

বন্ধ করুন