বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > ট্রাম লাইনের ফাঁদে উল্টে গেল বাইক, চালকের মাথা পিষে দিল ক্রেন, বিক্ষোভ স্থানীদের
দুর্ঘটনাগ্রস্ত বাইক। প্রতীকী ছবি।

ট্রাম লাইনের ফাঁদে উল্টে গেল বাইক, চালকের মাথা পিষে দিল ক্রেন, বিক্ষোভ স্থানীদের

  • তাদের অভিযোগ, এই এলাকাতে প্রায় প্রতিদিনই পথ দুর্ঘটনা ঘটে। ট্রাম লাইনে বাইকের চাকা স্কিট করে যাওয়ার ঘটনা প্রতিদিনই ঘটছে।

ট্রাম লাইনের ফাঁদে পরে ফের উল্টে গেল বাইক। উল্টোদিক থেকে আসা ক্রেনের চাকায় পিষে গেল বাইক চালকের মাথা। শহরে ফের পথ দুর্ঘনায় মৃত্যু হল এক বাইক চালকের। শুক্রবার সকালে ট্রাম লাইনে চাকা পড়ে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে উল্টে যায় ওই বাইক। এদিন ঘটনাটি ঘটেছে বাগমারি রোডে। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে ব্যাপক উত্তেজনা ছড়ায় এলাকায়। দুর্ঘটনার প্রতিবাদে ক্ষুব্ধ স্থানীয়রা বেশ কিছুক্ষণ রাস্তা অবরোধ করে। যার জেরে যান চলাচল ব্যাহত হয়। পরে পুলিশ গিয়ে অবরোধ হঠিয়ে দিলে আবার যান চলাচল স্বাভাবিক হয়।

স্থানীয় সূত্রে জানা যাচ্ছে, আজ সকাল পৌনে নটা নাগাদ কাঁকুড়গাছি থেকে মানিকতলার দিকে যাচ্ছিল একটি অ্যাপ নির্ভর বাইক। চালকের সঙ্গে ছিলেন একজন তরুণী। রাস্তা দিয়ে যাওয়ার সময় ট্রাম লাইনে বাইকের চাকা পড়ার পরেই নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে বাইক সমেত চালক এবং সহযাত্রী তরুণী রাস্তায় ছিটকে পড়ে যান। ঠিক সেই সময় উল্টো দিক থেকে অর্থাৎ মানিকতলা ব্লাড ব্যাঙ্ক থেকে কাঁকুড়গাছির দিকে একটি ক্রেন রাস্তা দিয়ে যাচ্ছিল। ক্রেনের চাকায় বাইক চালকের মাথা পিষে যায়। পুলিশ সূত্রে জানা যাচ্ছে, দুজনের মাথায় হেলমেট ছিল। তবে ক্রেনের চাপে হেলমেটটিও ভেঙে চুরমার হয়ে যায়। অন্যদিকে, সহযাত্রী তরুণীর দুটি হাতই ভেঙে গিয়েছে।

স্থানীয়রা জানিয়েছেন, ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয়েছে বাইক চালকের। দুজনকেই আরজিকর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে চালককে মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসকরা। অন্যদিকে, সহযাত্রী তরুণী আশঙ্কাজনক অবস্থায় আরজিকর হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। ঘটনার পরেই ক্রেনটিকে থানায় নিয়ে যাওয়ার পাশাপশি ক্রেন চালককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। অন্যদিকে, বাইক দুর্ঘটনার পরে রাস্তা অবরোধ করেন স্থানীয় বাসিন্দারা। তাদের অভিযোগ, এই এলাকাতে প্রায় প্রতিদিনই পথ দুর্ঘটনা ঘটে। ট্রাম লাইনে বাইকের চাকা স্কিট করে যাওয়ার ঘটনা প্রতিদিনই ঘটছে। তাই ট্রাম লাইন তুলে দিয়ে সেখানে পিচের রাস্তা করে দেওয়ার দাবিতে দীর্ঘক্ষণ ধরে পথ অবরোধ করেন স্থানীয়রা। পরে তাদের সঙ্গে কথা বলে অবরোধ উঠিয়ে দেয় পুলিশ।

এদিকে, গতকালই বাইক দুর্ঘটনা ঘটেছিল মেয়ো রোডে। বাইক চালক এবং আরোহী দুজনেই এখনও আশঙ্কাজনক অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন।

বন্ধ করুন