বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > হেলমেট ধরতে গিয়ে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে পড়ে গেলেন স্কুটি আরোহী, পিষে দিল স্কুল বাস
সল্টলেকে পথ দুর্ঘটনায় মৃত্যু স্কুটি আরোহীর। প্রতীকী ছবি।

হেলমেট ধরতে গিয়ে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে পড়ে গেলেন স্কুটি আরোহী, পিষে দিল স্কুল বাস

  • দুর্ঘটনার পর খবর পাওয়ার পরেই পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে বিধাননগর মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে তাকে মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসকরা।

শহরে ফের পথ দুর্ঘটনার বলি হলেন এক স্কুটি আরোহী। মাথায় হেলমেট থাকলেও বেল্ট লাগানো ছিল না। সেটি বাতাসের তীব্রতায় মাথা থেকে ছিটকে পড়ে যাওয়াতেই ঘটে বিপত্তি। হেলমেট ধরতে গিয়ে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে স্কুটি থেকে পড়ে যান আরোহী। তখন পিছন থেকে একটি স্কুল বাস তাকে পিষে দেয়। বুধবার সকালে সল্টলেক সেক্টর ফাইভে এই দুর্ঘটনা ঘটেছে। মৃতের নাম লাল্টু বৈদ্য (৪০)। তার বাড়ি হাওড়ার সালকিয়ায়।

দুর্ঘটনার পর খবর পাওয়ার পরেই পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে বিধাননগর মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে তাকে মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসকরা। স্থানীয়দের অভিযোগ, স্কুটির পিছনে থাকা স্কুল বাসটি দ্রুত গতিতে আসছিল। ফলে স্কুটি আরোহী পড়ে যাওয়ার পরে বাসের গতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পারেননি চালক। এর পরেই বাসের চাকা পিষে দেয় স্কুটি আরোহীকে। চিকিৎসকরা জানাচ্ছেন, অতিরিক্ত রক্তক্ষরণের ফলে ওই ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। অন্যদিকে, এই ঘটনায় ইলেকট্রনিক্স কমপ্লেক্স থানার পুলিশ ঘাতক স্কুল বাস এবং চালককে আটক করেছে ।

যদিও এদিনের দুর্ঘটনার জন্য স্থানীয় বাসিন্দারা সিগনালিং ব্যবস্থা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন। তাদের বক্তব্য, এই এলাকায় দুর্ঘটনা এই প্রথম নয়। এর আগেও বহুবার এলাকায় দুর্ঘটনা ঘটেছে। সেখানে সিগনালিং ব্যবস্থা ঠিক মতো কাজ না করার ফলে দু'চাকার আরোহীদের যাতায়াতে সমস্যায় পড়তে হয়। সেই কারণে প্রায়ই এই এলাকায় দুর্ঘটনা ঘটে থাকে। এই দুর্ঘটনার অন্য কোনও কারণ রয়েছে কিনা তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ। পাশাপশি সেখানে থাকা সিসিটিভির ফুটেজও পুলিশ খতিয়ে দেখছে।

 

বন্ধ করুন