বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > আইনের ফাঁক গলে ঘর ভাড়া নেয় দেবাঞ্জন, ভুয়ো টিকা কাণ্ডে ধৃত কসবার অফিসের মালিক
গ্রেফতার দেবাঞ্জন দেবের ভুয়ো কার্ড ও নীল বাতি লাগানো গাড়ি (নিজস্ব চিত্র)
গ্রেফতার দেবাঞ্জন দেবের ভুয়ো কার্ড ও নীল বাতি লাগানো গাড়ি (নিজস্ব চিত্র)

আইনের ফাঁক গলে ঘর ভাড়া নেয় দেবাঞ্জন, ভুয়ো টিকা কাণ্ডে ধৃত কসবার অফিসের মালিক

  • কসবা ভুয়ো টিকা কাণ্ডে এবার গ্রেফতার করা হল অশোক কুমার রায় নামক একজনকে। এই অশোকের কাছ থেকেই নাকি অফিস ভাড়া নিয়েছিল দেবাঞ্জন।

কসবা ভুয়ো টিকা কাণ্ডে এবার গ্রেফতার করা হল অশোক কুমার রায় নামক একজনকে। বুধবার রাতে তাঁকে গ্রেফতার করা হয়। এই অশোকের কাছ থেকেই নাকি অফিস ভাড়া নিয়েছিল দেবাঞ্জন। তদন্তকারীরা অশোককে জিজ্ঞাসাবাদ করে জানতে চাইছে যে দেবাঞ্জনের সঙ্গে তিনিও জড়িত ছিলেন কি না, বা দেবাঞ্জনের জালিয়াত কাণ্ড থেকে কোনওভাবে আর্থিকভাবে লাভবান হয়েছিলেন কি না। দেবাঞ্জনের মুখোমুখি বসিয়ে অশোক কুমারকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হতে পারে বলে জানা গিয়েছে। জানা গিয়েছে ২০২০ সালে মাসিক ৬৫ হাজার টাকার বিনিময়ে এই অফিস ঘর দেবাঞ্জনকে ভাড়া দেন অশোক কুমার।

দেবাঞ্জনের চারতলার অফিসের কোনও বৈধ কাগজপত্র ছিল না। এক্ষেত্রে গোয়েন্দাদের অনুমান পৌর আইন সম্পর্কে রীতিমতো পড়াশোনা করেছিল দেবাঞ্জন। কারণ পৌর আইনের ১৯৮০ সালের ১৯৯ নম্বর ধারা অনুযায়ী পুর দফতর ব্যবসায়িক কারণে ট্রেড লাইসেন্স দেয়। কিন্তু, কোনও সরকারি দফতরের ক্ষেত্রে ট্রেড লাইসেন্সের প্রয়োজন হয় না। গোয়েন্দাদের প্রাথমিক অনুমান, এই সকল খুঁটিনাটি বিষয়ে দেবাঞ্জনকে কলকাতা পৌরনিগমের কোনও আধিকারিক সাহায্য করেছে।

এদিকে ধৃত দেবাঞ্জন দেবের ল্যাপটপ ঘেটে লালবাজারের গোয়েন্দারা কলকাতা পৌরনিগমের অর্থ বিভাগ, পূর্ত এবং বিজ্ঞাপন বিভাগের তিনটি অভন্তরীন নথির স্ক্যান কপি উদ্ধার করেছে। কলকাতা পৌরনিগমের আইন সম্পর্কে ভালোই জ্ঞান ছিল কসবায় ভ্যাকসিন-কাণ্ডে ধৃত ভুয়ো আইএএস দেবাঞ্জন দেবের। পৌর আইন সম্পর্কে এই জ্ঞান পৌরনিগমের কোনও আধিকার বা প্রভাবশালী ব্যক্তির থেকে দেবাঞ্জন পেয়েছে বলে মনে করছেন তদন্তকারীরা। জানা গিয়েছে, দেবাঞ্জন দেবকে কলকাতা পৌরনিগমের একাধিক উচ্চপদস্থ আধিকারিক বিভিন্ন সময়ে সাহায্য করত।

জানা গিয়েছে, দেবাঞ্জন দেব একাধিকবার পৌরনিগমের বিভিন্ন আধিকারিকদের সঙ্গে দেখা করত। ফলে পৌরনিগমের সমস্ত সিসিটিভি ফুটেজ ইতিমধ্যেই কলকাতা পুলিশের সাইবার সেলের আধিকারিকরা খতিয়ে দেখছেন। সিসিটিভি ফুটেজ থেকেই স্পষ্ট হবে, কোন কোন দফতরে দেবাঞ্জনের যাতায়াত ছিল।

 

বন্ধ করুন