বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > শিশির অধিকারীর সাংসদ পদ টলমল, সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়কে সাক্ষ্য দিতে ডাক সংসদে
সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়।

শিশির অধিকারীর সাংসদ পদ টলমল, সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়কে সাক্ষ্য দিতে ডাক সংসদে

  • যে অভিযোগ তোলা হয়েছিল তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে।

এবার সংসদ ভবনে ডাক পড়ল তৃণমূল কংগ্রেস সাংসদ সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়ের। কারণ কাঁথির সাংসদ শিশির অধিকারীর লোকসভার সদস্য পদ খারিজ সংক্রান্ত বিষয়। যে অভিযোগ তোলা হয়েছিল তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে। আর তা নিয়েই সাক্ষ্য দিতে ডেকে পাঠানো হল তৃণমূল কংগ্রেসের লোকসভার দলনেতা সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়কে। আগামী ২৬ এপ্রিল মৌখিক সাক্ষ্য দেওয়ার জন্য সুদীপবাবুকে সংসদ ভবনের অ্যানেক্স বিল্ডিংয়ে ডেকে পাঠানো হয়েছে৷

ঠিক কী অভিযোগ উঠেছিল?‌ তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে অভিযোগ তোলা হয়, কাঁথির সাংসদ শিশির অধিকারী বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন। তাই তাঁর সাংসদ পদ খারিজ করা হোক। লোকসভার অধ্যক্ষ ওম বিড়লার কাছে এই অভিযোগ জমা দেওয়া হয়েছিল। এই বিষয়টি নিয়ে একাধিকবার লোকসভার অধ্যক্ষের কাছে তদ্বির করেছেন সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়৷ এখন শিশিরবাবুর সাংসদ পদ খারিজের বিষয়টি লোকসভার প্রিভিলেজ এবং এথিক্স কমিটির বিবেচনাধীন রয়েছে।

কোথা থেকে ডাক এল?‌ সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়কে সংসদের প্রিভিলেজ এবং এথিক্স কমিটি থেকে ডাকা হয়েছে। এই দুই কমিটির সদস্যদের সামনেই সাক্ষ্য দিতে সুদীপবাবুকে ডাকা হয়েছে৷ শুভেন্দু অধিকারীর সঙ্গে তৃণমূল কংগ্রেসের দূরত্ব তৈরি হয়েছিল। তারপর থেকেই তাঁর বাবা শিশির অধিকারী এবং ভাই দিব্যেন্দু অধিকারীর সঙ্গেও দূরত্ব তৈরি হয় ঘাসফুল শিবিরের। ২০২০ সালের ডিসেম্বর মাসে শুভেন্দু অধিকারী বিজেপিতে যোগ দেন। একুশের নির্বাচনের আগে অমিত শাহের সঙ্গে একমঞ্চে দেখা গিয়েছিল শিশির অধিকারীকে৷

এই ঘটনার পর থেকে শিশির অধিকারী ছাড়াও পূর্ব বর্ধমানের সাংসদ সুনীল মণ্ডলের সাংসদ পদও খারিজের দাবি জানিয়েছিল তৃণমূল কংগ্রেস৷ কারণ তিনিও একুশের বিধানসভা নির্বাচনের আগে বিজেপিতে যোগ দেন৷ কিন্তু সুনীল মণ্ডল পরে তৃণমূল কংগ্রেসে ফিরে আসায় তাঁর সাংসদ পদ খারিজের দাবি থেকেও সরে এসেছে তৃণমূল কংগ্রেস৷

বন্ধ করুন