বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > SSC Scam: পার্থ–অর্পিতা ঠাঁই হতে চলেছে আলিপুর–প্রেসিডেন্সি জেলে!‌ তোড়জোড় শুরু জোরকদমে
পার্থ চট্টোপাধ্যায় এবং অর্পিতা মুখোপাধ্যায়। (ফাইল ছবি)

SSC Scam: পার্থ–অর্পিতা ঠাঁই হতে চলেছে আলিপুর–প্রেসিডেন্সি জেলে!‌ তোড়জোড় শুরু জোরকদমে

  • আলিপুর মহিলা এবং প্রেসিডেন্সি জেলে ওই দুই বন্দির জন্য‌ ব্যবস্থা সেরে রেখেছে জেল কর্তৃপক্ষ। এখন প্রেসিডেন্সি জেলে রয়েছেন একাধিক ‘হাইপ্রোফাইল’ সাজাপ্রাপ্ত ও বিচারাধীন বন্দি। তবে সেই সব বন্দির থেকে অনেক দূরের সেলেই দফতরবিহীন এই অভিযুক্ত মন্ত্রীকে রাখার পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে।

ইডি হেফাজত শেষ হলেই পার্থ চট্টোপাধ্যায় ও তাঁর ‘বান্ধবী’ অর্পিতা মুখোপাধ্যায়ের স্থান হবে জেল হেফাজতে বলে মনে করেছেন আইনজ্ঞরা। ইতিমধ্যেই মন্ত্রিসভা এবং দলীয় পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে। এখন ইডি–কে প্রমাণ দিতে হবে আদালতে যে পার্থ–অর্পিতা দোষী। তাহলেই সরাসরি জেল হেফাজত হবে।

কোথায় থাকবেন পার্থ–অর্পিতা?‌ সূত্রের খবর, আলিপুর মহিলা এবং প্রেসিডেন্সি জেলে ওই দুই বন্দির জন্য‌ ব্যবস্থা সেরে রেখেছে জেল কর্তৃপক্ষ। এখন প্রেসিডেন্সি জেলে রয়েছেন একাধিক ‘হাইপ্রোফাইল’ সাজাপ্রাপ্ত ও বিচারাধীন বন্দি। তবে সেই সব বন্দির থেকে অনেক দূরের সেলেই দফতরবিহীন এই অভিযুক্ত মন্ত্রীকে রাখার পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। আর আলিপুর মহিলা জেলের বিশেষ সেলে অর্পিতাকে রাখা হবে।

আর কী জানা যাচ্ছে?‌ কারা দফতরের একটি সূত্রে খবর, পার্থ–অর্পিতাকে আলাদা জেলে রাখার পরিকল্পনা করা হয়েছে। কারণ পাশাপাশি দু’টি জেলে যদি এই দুই বন্দিকে নিয়ে সমস্যা হয় তাই এই বিকল্প ভাবনা। এমনকী প্রয়োজনে অর্পিতাকে দমদম কেন্দ্রীয় সংশোধনাগারেও পাঠানো হতে পারে। পরিস্থিতি অনুযায়ী সমস্ত পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

কেমন ব্যবস্থা রাখা হচ্ছে?‌ প্রতিটি সংশোধনাগারের সেল একেবারে সাফ রাখা হচ্ছে। সেখানে কোনও বিলাসবহুল ব্যবস্থা রাখা হচ্ছে না। কারণ তাহলে বিষয়টি নিয়ে প্রশ্ন উঠতে পারে। বাইরের খাবার জেলের ভিতরে আনা যাবে না। সব বন্দিরা যেমন খাবার পান একই খাবার পার্থ–অর্পিতা পাবেন। আদালতের যদি বিশেষ কোনও নির্দেশ থাকে তা অক্ষরে অক্ষরে পালন করা হবে বলে প্রেসিডেন্সি জেলের এক আধিকারিক জানিয়েছেন।

বন্ধ করুন