বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > মান সম্মান সব জলাঞ্জলি গেল, গ্রেফতারির পর একটাই আক্ষেপ পার্থর
পার্থ চট্টোপাধ্যায়।

মান সম্মান সব জলাঞ্জলি গেল, গ্রেফতারির পর একটাই আক্ষেপ পার্থর

  • সূত্রের খবর, সকালে গ্রেফতারির পর থেকেই মনমরা হয়ে পড়েন পার্থবাবু। এর পর তাঁকে নিয়ে যাওয়া হয় জোকা ইএসআই হাসপাতালে। সেখানে তাঁর কোনও গুরুতর শারীরিক সমস্যা ধরা পড়েনি। এর পর তাঁকে ব্যাঙ্কশাল আদালতে পেশ করে ইডি।

শারীকিক ভাবে সুস্থ থাকলেও গ্রেফতারির পর মানসিকভাবে ভেঙে পড়েছেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়। এমনই খবর পাওয়া যাচ্ছে ইডি সূত্রে। শনিবার বিকেলে মন্ত্রীমশাইকে ২ দিনের জেল হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছে ব্যাঙ্কশাল আদালত। সূত্রের খবর, তার পরই ‘মান সম্মান সব জলাঞ্জলি গেল’ বলে আক্ষেপ করতে শোনা গিয়েছে পার্থবাবুকে।

শনিবার রাত ১.৫৫ মিনিটে পার্থবাবুকে আনুষ্ঠানিকভাবে গ্রেফতার করা হয় বলে ইডি সূত্রের খবর। গোয়েন্দাসূত্রে জানা গিয়েছে, তদন্তে সহযোগিতা করছিলেন না পার্থবাবু। তাঁর সঙ্গে অর্পিতার সম্পর্ক কী? কী ভাবে অত টাকা তাঁর ঘনিষ্ঠ অভিনেত্রীর কাছে পৌঁছল তা জানাতে চাইছিলেন না তিনি। এর পর অর্পিতা মুখোপাধ্যায়কে ফোনের ওপাশে রেখে পার্থবাবুকে জেরা করেন গোয়েন্দারা। তাতেই সব কথা স্বীকার করে নেন প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী।

সূত্রের খবর, সকালে গ্রেফতারির পর থেকেই মনমরা হয়ে পড়েন পার্থবাবু। এর পর তাঁকে নিয়ে যাওয়া হয় জোকা ইএসআই হাসপাতালে। সেখানে তাঁর কোনও গুরুতর শারীরিক সমস্যা ধরা পড়েনি। এর পর তাঁকে ব্যাঙ্কশাল আদালতে পেশ করে ইডি। সেখানে তাঁর ২ দিনের ইডি হেফাজত হয়। সূত্রের খবর, এর পর পার্থবাবু বলেন, ‘মান সম্মান সব জলাঞ্জলি গেল।’

আদালত থেকে বেরিয়ে পার্থবাবুর এক আইনজীবী বলেন, পার্থবাবুর শারীরিক অবস্থা ভালো নয়। ওনার হার্টের সমস্যা রয়েছে। ইডিকে বলব যেন ওনার ঠিক মতো চিকিৎসা করায়।

 

বন্ধ করুন