বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > আমেরিকা থেকে দেশে ফিরেই সোজা ইডির দফতের পার্থর জামাই কল্যাণময় ভট্টাচার্য

আমেরিকা থেকে দেশে ফিরেই সোজা ইডির দফতের পার্থর জামাই কল্যাণময় ভট্টাচার্য

সিজিও কমপ্লেক্স। বিধাননগর

এর পরই গত ২৩ অগাস্ট কল্যাণময়কে প্রথমবার তলব করেন গোয়েন্দারা। তাঁকে ১ সেপ্টেম্বর হাজিরা দিতে বলা হয়েছিল। কিন্তু সেই সমন কল্যাণময়ের কাছে সময়মতো পৌঁছয়নি বলে জানিয়েছে ইডি। এর পর ২ সেপ্টেম্বর ফের তাঁর নামে সমন জারি হয়।

ED-র তলবে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র থেকে দেশে ফিরে সোজা সিজিও কমপ্লেক্সে ঢুকলেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের জামাই কল্যাণময় ভট্টাচার্য। তাঁকে এর আদে ২ বার তলব করেছিল ED. সোমবার কলকাতায় ফিরেই ইডির দফতরে পৌঁছেছেন তিনি। তাঁর কাছ থেকে একাধিক বিস্ফোরক তথ্য পাওয়া যেতে পারে বলে মনে করছেন ইডির গোয়েন্দারা।

শিক্ষক নিয়োগ দুর্নীতিকাণ্ডে গত ২৩ জুলাই পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে গ্রেফতার করে ইডি। তদন্তে উঠে আসে পার্থর একাধিক সম্পত্তি রয়েছে কল্যাণময়ের নামে। এমনকী পশ্চিম মেদিনীপুরের পিংলায় স্ত্রীর স্মৃতিতে তৈরি স্কুলেরও ডিরেক্টর কল্যাণবাবু। ওই স্কুলে পার্থ চট্টোপাধ্যায় অন্তত ১৫ কোটি টাকা বিনিয়োগ করেছেন বলে তদন্তে প্রকাশ। কিন্তু খাতায় কলমে সেখানে ৪.৩৫ কোটি টাকা বিনিয়োগ হয়েছে বলে দেখানো হয়েছে।

প্রাথমিকে আরও ৩৯২৯ শূন্যপদে নিয়োগের নির্দেশ আদালতের

এর পরই গত ২৩ অগাস্ট পার্থর মেয়ে সোহিনীর স্বামী কল্যাণময়কে প্রথমবার তলব করেন গোয়েন্দারা। তাঁকে ১ সেপ্টেম্বর হাজিরা দিতে বলা হয়েছিল। কিন্তু সেই সমন কল্যাণময়ের কাছে সময়মতো পৌঁছয়নি বলে জানিয়েছে ইডি। এর পর ২ সেপ্টেম্বর ফের তাঁর নামে সমন জারি হয়। ৮ সেপ্টেম্বর হাজিরা দিতে বলা হয় তাঁকে। কিন্তু মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাস প্রদেশ থেকে দেশে ফেরেননি কল্যাণময়। ফলে হাজিরাও দেননি। অবশেষে পুজোর মুখে দেশে ফিরে হাজিরা দিলেন তিনি।

জানা গিয়েছে, কল্যাণময়বাবু মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে কাপড়ের কারবার করেন। সেখানে বাড়ি রয়েছে তাঁর। রয়েছে দামি গাড়িও। ইডির গোয়েন্দাদের অনুমান, কল্যাণময়কে জেরা করে আরও তথ্য পেতে পারেন তারা। এমনকী পার্থর দুর্নীতির নতুন দিক খুলে দিতে পারেন তার জামাই। অর্পিতার সঙ্গে পার্থর যোগাযোগের খবর তার বাড়ির লোক জানত কি না সেই প্রশ্নেরও উত্তর মিলতে পারে কল্যাণময়ের কাছে।

 

বন্ধ করুন