বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > ‘পড়ে গিয়ে’ করোনা রোগীর মৃত্যুর, জোকা ইএসআইয়ের বিরুদ্ধে গাফিলতির অভিযোগ
‘পড়ে গিয়ে’ করোনা রোগীর মৃত্যুর, জোকা ইএসআইয়ের বিরুদ্ধে গাফিলতির অভিযোগ। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)
‘পড়ে গিয়ে’ করোনা রোগীর মৃত্যুর, জোকা ইএসআইয়ের বিরুদ্ধে গাফিলতির অভিযোগ। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)

‘পড়ে গিয়ে’ করোনা রোগীর মৃত্যুর, জোকা ইএসআইয়ের বিরুদ্ধে গাফিলতির অভিযোগ

  • করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভরতি হয়েছিলেন।

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভরতি হয়েছিলেন। কিন্তু হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের ‘গাফিলতিতে’ পড়ে গিয়ে মৃত্যু হল এক রোগীর। জোকা ইএসআই হাসপাতালের বিরুদ্ধে এমনই অভিযোগ তুললেন মৃত রোগীর পরিজনরা। যদিও অভিযোগ অস্বীকার করেছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

গত সোমবার ঠাকুরপুকুরের বাসিন্দা রাজিয়া হোসেনকে (৬৬) হাসপাতালে ভরতি করা হয়েছিল। করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন তিনি। পরিবারের দাবি, বুধবার পর্যন্ত রাজিয়ার সঙ্গে ফোনে কথা হয়। কিন্তু তারপর আর ফোনে কথা বলা যায়নি। তাই হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের সঙ্গে জানানো হয়। শুক্রবার হাসপাতালের তরফে জানানো হয়, করোনায় মৃত্যু হয়েছে বৃদ্ধার।

মৃতের ছেলে আকবর হোসেনের দাবি, রাজিয়ার মাথায় ক্ষতচিহ্ন ছিল। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের গাাফিলতিতে পড়ে গিয়ে মাথায় চোট পান রাজিয়া। তার জেরেই মৃত্যু হয়েছে। আকবর দাবি করেন, মেঝে থেকে বেশ খানিকটা উঁচু বেডে রাজিয়া ছিলেন। তা নিয়ে তাঁকে জানিয়েছিলেন। আর সেই বেড থেকেই পড়ে গিয়ে বৃদ্ধার মৃত্যু হয়েছে বলে দাবি তুলেছেন আকবর। ইতিমধ্যে বৃদ্ধার পরিবারের তরফে জোকা ইএসআইয়ের সুপারকে চিঠি দেওয়া হয়েছে। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের সঙ্গে একপ্রস্থ বচসাও বেঁধেছে। বিক্ষোভ দেখান আত্মীয়রা। ঠাকুরপুকুর থানায় অভিযোগও দায়ের করেছে বৃদ্ধার পরিবার।

যদিও গাফিলতির অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। তাদের বক্তব্য, রাজিয়ার শরীরে অক্সিজেনের মাত্রা ক্রমশ কমছিল। শারীরিক অবস্থার অবনতি হচ্ছিল। তার জেরে মৃত্যু হয়েছে রাজিয়ার।

বন্ধ করুন