বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > ভোট পরবর্তী হিংসা: কলকাতার ২০ কো-অর্ডিনেটরের বিরুদ্ধে FIR-এর দাবি হাই কোর্টে
কলকাতা হাইকোর্ট। (ফাইল ছবি, সৌজন্য সমীর জানা/হিন্দুস্তান টাইমস)
কলকাতা হাইকোর্ট। (ফাইল ছবি, সৌজন্য সমীর জানা/হিন্দুস্তান টাইমস)

ভোট পরবর্তী হিংসা: কলকাতার ২০ কো-অর্ডিনেটরের বিরুদ্ধে FIR-এর দাবি হাই কোর্টে

  • আবেদনকারীর দাবি, ভোট পরবর্তী হিংসার ঘটনায় সক্রিয় ভূমিকা নিয়েছিলেন এই ২০ কো-অর্ডিনেটর।

ভোট পরবর্তী হিংসায় যুক্ত কলকাতা পুরসভার ২০ জন কো-অর্ডিনেটর। এই অভিযোগ তুলে হাই কোর্টে বিচারপতি রাজেশ বিন্দালের এজলাসে নতুন করে মামলা দায়ের করার অনুমতি চেয়ে আবেদন করলেন এক আইনজীবী। আবেদনকারীর দাবি, ভোট পরবর্তী হিংসার ঘটনায় সক্রিয় ভূমিকা নিয়েছিলেন এই ২০ কো-অর্ডিনেটর। তাই তাঁদের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করার নির্দেশ দিক আদালত।

এদিকে মামলাকারী আইনজীবীর আরও অভিযোগ ভোট মিটে যাওয়ার এত মাস পরও হিংসার ঘটনা ঘটছে বিভিন্ন জায়গায়। তাই এই আবেদনকে মূল মামলার সঙ্গে যুক্ত করার আবেদন করেন সেই আবেদনকারী। এদিকে আবেদনকারীর দাবি, আদালতের নির্দেশে সারা রাজ্য চষে বেরালেও সময়ের অভাবে অনেক জায়গাতেই সবার অভিযোগ শুনতে ব্যর্থ হয়েছে জাতীয় মানবাধিকার কমিশন। আদালতের নির্দেশকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে এখনও নাকি রাজ্যের বহু স্থানে দায়ের করা হচ্ছে না অভিযোগ। ধর্ষণের অভিযোগককে লঘু করে দেখাতে তা শ্লীলতাহানী হিসেবে প্রমাণ করতে চাইছে পুলিশ।

এদিকে এর আগেই উচ্চ আদালের নির্দেশে খুন এবং ধর্ষণের মামলার তদন্তে নেমেছে সিবিআই। এই পরিস্থতিতে সিবিআই যাতে শ্লীলতাহানীর অভিযোগগুলি খতিয়ে দেখে, সেই দাবি জানানো হয়েছে আবেদনকারীর তরফে। এদিকে সিবিআইয়ের দফতরে ভিড় বাড়ছে ভোট পরবর্তী হিংসার শিকার মানুষজনের। সকলেরই অভিযোগ, হিংসার শিকার হওয়া সত্ত্বেও তাঁদের অভিযোগ নথিভুক্ত করেনি পুলিশ। আর সেই কারণেই সুবিচারের আশায় কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থার দুয়ারে হাজির হচ্ছেন তাঁরা। এই পরিস্থিতিতে এই নয়া মামলা পুরো ঘটনাপ্রবাহের মোড় ঘুরিয়ে দিতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে।

বন্ধ করুন