বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > ‘বাংলা’ সরিয়ে ‘প্রধানমন্ত্রী’ না বসালে আবাস যোজনার টাকা পাঠাবে না কেন্দ্র
প্রতীকি ছবি

‘বাংলা’ সরিয়ে ‘প্রধানমন্ত্রী’ না বসালে আবাস যোজনার টাকা পাঠাবে না কেন্দ্র

  • ক্ষমতায় আসার কয়েক বছর পর থেকেই কেন্দ্রীয় প্রকল্পের নাম বদলের অভিযোগ উঠেছে মমতা সরকারের বিরুদ্ধে। তার মধ্যে অন্যতম কেন্দ্রের প্রধানমন্ত্রী আবাস প্রকল্প। এই প্রকল্পের অধীনে কোনও ব্যক্তির জমি থাকলেও যদি পাকা বাড়ি না থাকে তাহলে তাকে পাকা বাড়ি বানিয়ে দেয় সরকার।

কেন্দ্রীয় প্রকল্পের নাম বদলের রাজনীতির বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ করল মোদী সরকার। স্পষ্ট জানিয়ে দেওয়া হল, আসল নামে প্রকল্প না চালালে কেন্দ্রীয় অনুদান পাবে না রাজ্য এমনটাই জানিয়েছে কেন্দ্রীয় গ্রামোন্নয়ন মন্ত্রক। তাদের সাফ কথা, আবাস যোজনার আগে ‘বাংলা’ সরিয়ে ‘প্রধানমন্ত্রী’ না বসালেে অনুদান পাঠাবে না কেন্দ্রীয় সরকার।

ক্ষমতায় আসার কয়েক বছর পর থেকেই কেন্দ্রীয় প্রকল্পের নাম বদলের অভিযোগ উঠেছে মমতা সরকারের বিরুদ্ধে। তার মধ্যে অন্যতম কেন্দ্রের প্রধানমন্ত্রী আবাস প্রকল্প। এই প্রকল্পের অধীনে কোনও ব্যক্তির জমি থাকলেও যদি পাকা বাড়ি না থাকে তাহলে তাকে পাকা বাড়ি বানিয়ে দেয় সরকার। এই প্রকল্পের অধিকাংশ টাকা দেয় কেন্দ্র। এই প্রকল্পের নাম বদলে ‘বাংলা আবাস যোজনা’ করে দেয় মমতা সরকার।

কেন্দ্রের তরফে জানানো হয়েছে, নাম বদলের বিরোধিতা করে ২০১৭ সালে রাজ্যকে চিঠি দিয়েছিল কেন্দ্র। তার পর চিঠি দেওয়া হয় গত ১২ মে। কিন্তু রাজ্যের থেকে কোনও জবাব কেন্দ্রের কাছে পৌঁছয়নি। তাই আবাস যোজনায় কেন্দ্রীয় তহবিল পাঠানো বন্ধ থাকবে বলে জানানো হয়েছে। একই সঙ্গে ‘আবাস প্লাস’ যোজনাতেও রাজ্য সরকার কোনও টাকা পাবে না।

গত সপ্তাহে তৃণমূল সাংসদদের একটি দল আবাস যোজনার তহবিল পাঠানোর দাবিতে কেন্দ্রীয় গ্রামোন্নয়ন মন্ত্রী গিরিরাজ সিংহের সঙ্গে দেখা করেন। তার পরই পালটা চিঠিতে একথা জানাল কেন্দ্র।

ওদিকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দাবি, স্থানীয় মানুষের বোধগম্যতা ও স্থানীয় সংস্কৃতির প্রতিফলন ঘটাতে কেন্দ্রীয় প্রকল্পের নামবদল করেছে তার সরকার। কিন্তু ‘প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা’-য় কোন শব্দটি বাংলা শব্দকোষ বহির্ভূত তা বলতে পারেননি ভাষাবিদরা।

 

বন্ধ করুন