বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > ব্যবসা শুরু করার জন্য এটিএম লুঠের চেষ্টা, তিন মিনিটে ধৃত!
ব্যবসা শুরু করার জন্য এটিএম লুঠের চেষ্টা, জেরায় পুলিশকে জানাল ধৃত যুবক। প্রতীকী ছবি  (via REUTERS)

ব্যবসা শুরু করার জন্য এটিএম লুঠের চেষ্টা, তিন মিনিটে ধৃত!

  • শুক্রবার রাতে আলিপুর চিড়িয়াখানার উল্টোদিকের ওই এটিএমে প্রথমে এক যুবককে ঢুকতে দেখেন এটিএমের নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা নিরাপত্তারক্ষী।

আলিপুর চিড়িয়াখানার উল্টোদিকের এটিএম ভাঙচুর করে টাকা লুঠের চেষ্টার অভিযোগে এক যুবককে হাতেনাতে গ্রেফতার করল পুলিশ। আর সেই যুবককে গ্রেফতার করে পুলিশ যা জানতে পারল তা হয়তো আর পাঁচটা মানুষের মনে দাগ কাটতে পারে। ধৃত যুবক পুলিশকে জানিয়েছে, ব্যবসার জন্য টাকার প্রয়োজন ছিল। ব্যাঙ্ক থেকে ঋণ না মেলায় তিনি এটিএম লুঠের চেষ্টা করছিলেন। ধৃত যুবকের নাম গণেশ ডোম। তার বিরুদ্ধে লুঠের চেষ্টা সহ একাধিক ধারায় মামলা রুজু করেছে পুলিশ।

জানা গিয়েছে, শুক্রবার রাতে আলিপুর চিড়িয়াখানার উল্টোদিকের ওই এটিএমে প্রথমে এক যুবককে ঢুকতে দেখেন এটিএমের নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা নিরাপত্তারক্ষী। যুবকের আচরণ দেখে সন্দেহ হলে তিনি পুলিশকে খবর দেন। মাত্র তিন মিনিটের মধ্যে ঘটনাস্থলে পৌঁছে যায় পুলিশ। ঘটনায় যুবককে হাতেনাতে ধরে ফেলে পুলিশ। সূত্রের খবর, সিসিটিভি ক্যামেরাতে যুবকের মুখের ছবি যাতে ধরা না পড়ে তার জন্য এটিএমের ক্যামেরার লেন্স ঢেকে দেওয়া হয়েছিল। এটিএম কার্ড লাগিয়ে লোহার রোডের মাধ্যমে সেটিকে ভাঙার চেষ্টা করছিল ওই যুবক। কিন্তু, বেশ কিছুটা ভাঙার পরেই পুলিশ সেখানে পৌঁছে যুবককে হতেনাতে ধরে ফেলে।

পুলিশ জানা গিয়েছে, ওই যুবক আমহার্স্টস্ট্রিট বৈঠকখানা রোডের বাসিন্দা। জেরায় ওই যুবক পুলিশকে জানিয়েছে, তিনি অনেকটা পড়াশোনা করেছেন। কিন্তু চাকরি পাননি। তাই চেয়েছিলেন ব্যবসা করতে। কিন্তু তার জন্য প্রয়োজন অর্থ। সেই অর্থ না থাকার জন্য তিনি বহুবার ব্যাঙ্কের কাছে ঋণের জন্য গিয়েছিলেন। কিন্তু তারপরেও ঋণ না পাওয়ায় বাধ্য হয়ে এটিএম লুঠের পথ বেছে নেন। প্রাথমিকভাবে পুলিশ যুবক পুলিশের কাছে এই দাবি করলেও তাতে কতটা সত্যতা রয়েছে তা যাচাই করে দেখছে পুলিশ। এখন ওই যুবক পুলিশের কাছে সহানুভূতি পাওয়ার জন্য মিথ্যা কথা বলেছিল নাকি সত্য তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

বন্ধ করুন