বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > Medical admission scam- MBBS-এ ভর্তি করিয়ে দেওয়ার নামে ২৫ লক্ষ প্রতারণা, ধৃত আরজিকরের নিরাপত্তারক্ষী
আরজিকর হাসপাতাল।
আরজিকর হাসপাতাল।

Medical admission scam- MBBS-এ ভর্তি করিয়ে দেওয়ার নামে ২৫ লক্ষ প্রতারণা, ধৃত আরজিকরের নিরাপত্তারক্ষী

  • তাদের বক্তব্য, এই ঘটনার সঙ্গে শুধু নিরাপত্তারক্ষী নন বড় কোনও মাথা জড়িত রয়েছে। অবিলম্বে তাদের খুঁজে বার করে তার শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে। নিরাপত্তারক্ষীকে জিজ্ঞাসাবাদ করে অভিযুক্তের খোঁজ চালাচ্ছে পুলিশ।

রাজ্যের একাধিক সরকারি হাসপাতালে আগে বহুবার দালালচক্রের অভিযোগ উঠেছে। এই অভিযোগগুলির অধিকাংশ ক্ষেত্রেই নিরাপত্তাকর্মীদের জড়িত থাকার প্রমাণ পাওয়া গিয়ে। এবার ডোনার সিটে এমবিবিএসে ভর্তি করে দেওয়ার নামে দুই ছাত্রের কাছে ২৫ লক্ষ টাকা প্রতারণার অভিযোগ উঠল। আরজিকর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের এক নিরাপত্তারক্ষী এই প্রতারণার সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ এবং পুলিশের তৎপরতায় চুক্তিভিত্তিক ওই নিরাপত্তারক্ষীকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, যে দুজন ছাত্রের কাছ থেকে ভর্তির নামে টাকা নিয়ে প্রতারণা করা হয়েছে তারা আগরতলার বাসিন্দা। আরজিকর মেডিকেল কলেজ সূত্রে জানা গিয়েছে, সেখানে ডোনার কোটায় দুটি আসন রয়েছে। সেই আসনে ভর্তির জন্য ওই দুই ছাত্রকে টোপ দিয়েছিল নিরাপত্তারক্ষী। এরজন্য আরজিকর মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষের সই জাল করে এবং ইমেইল হ্যাক করা হয়েছিল। পরে ওই দুই ছাত্র হাসপাতালের অধ্যক্ষ সন্দীপ ঘোষের সঙ্গে যোগাযোগ করে জানতে পারেন তারা প্রতারিত হয়েছেন।

অভিযোগ, স্বাস্থ্য দফতরের এক আধিকারিকের সঙ্গেও প্রতারণা চেষ্টা করেছিল প্রতারক। ওই আধিকারিক তার মেয়ের ভর্তির জন্য ট্রমা কেয়ার সেন্টারের এক ব্যক্তির সঙ্গে কথা বলতেই প্রতারণার বিষয়টি অনুমান করেন। এরপর তিনি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করেন।

ঘটনায় প্রতারণাচক্রে কারা জড়িত তা জানার চেষ্টা চালায় পুলিশ এবং হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। এরপরে সিসিটিভির ফুটেজ খতিয়ে দেখে নিরাপত্তারক্ষীকে গ্রেফতার করা হয়। এদিকে, প্রতারণাচক্র ফাঁস হতেই তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছে এসইউসিআইয়ের ছাত্র সংগঠন এইআইডিএসও। তাদের বক্তব্য, এই ঘটনার সঙ্গে শুধু নিরাপত্তারক্ষী নন বড় কোনও মাথা জড়িত রয়েছে। অবিলম্বে তাদের খুঁজে বার করে তার শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে। নিরাপত্তারক্ষীকে জিজ্ঞাসাবাদ করে অভিযুক্তের খোঁজ চালাচ্ছে পুলিশ।

বন্ধ করুন