বাড়ি > বাংলার মুখ > কলকাতা > পুলিশকে দেখে পুলিশের বউও হাসে, বলে ইউনিফর্ম ছেড়ে আমার শাড়ি পরো: দিলীপ ঘোষ
বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ
বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ

পুলিশকে দেখে পুলিশের বউও হাসে, বলে ইউনিফর্ম ছেড়ে আমার শাড়ি পরো: দিলীপ ঘোষ

  • এমনকী এদিন পুলিশকে চাকরি ছেড়ে সবজি বিক্রি করার পরামর্শও দেন দিলীপবাবু। বলেন, অন্তত ছেলে বুক ফুলিয়ে বলতে পারবে বাবা সবজি বিক্রি করেন।

বিধানসভা নির্বাচন যত এগোচ্ছে তত বাড়ছে তাঁর জিভের ধার। একই জিভে একাধারে ছিন্নভিন্ন করছেন শাসকদল তৃণমূলকে, অন্যদিকে তাঁর নিশানা পুলিশ – প্রশাসনের কর্তারা। আর আক্রমণের ঝাঁঝ নিয়মিত ভাষার ভারসাম্য হারানোর অভিযোগও উঠছে তাঁর বিরুদ্ধে। যেমন শনিবার উঠল উত্তর ২৪ পরগনার বেলঘরিয়ায়। এদিন সকালে চায়ের আসরে সেখানে পুলিশকে বেলাগাম ভাষায় আক্রমণ করলেন দিলীপবাবু। 

এদিন দিলীপ ঘোষ বলেন, ‘যতগুলো ওসি, সবচেয়ে বড় চামচা। ওসি আইসি এদের মেরুদণ্ড নেই। এদের বউও হাসে এদের অবস্থা দেখলে। বলে যে, তুমি আমার শাড়িটা পরে যাবে, তুমি ইউনিফর্ম পরবে না।‘

এমনকী এদিন পুলিশকে চাকরি ছেড়ে সবজি বিক্রি করার পরামর্শও দেন দিলীপবাবু। বলেন, অন্তত ছেলে বুক ফুলিয়ে বলতে পারবে বাবা সবজি বিক্রি করেন। তাঁর কথায়, ‘আমি দাঁড়িয়ে বলছি চোখে চোখ রেখে। কোনও বাপের ব্যাটা পুলিশ দাঁড়িয়ে থাকলে আমার কথার প্রতিবাদ করুক। আমার দুঃখ হয় পুলিশকে দেখলে, লজ্জা হয়। চাকরি ছেড়ে দিয়ে সবজি বিক্রি করুন। কমপক্ষে আপনার ছেলে বলতে পারবে, আমার বাবা সবজির ব্যবসা করে।‘

বিধানসভা নির্বাচন যত এগোচ্ছে তত তৃণমূলের পাশাপাশি পুলিশের বিরুদ্ধে আক্রমণের ঝাঁঝ বাড়াচ্ছে বিজেপি। তাদের অভিযোগ, শাসকদলের সঙ্গে হাত মিলিয়ে পশ্চিমবঙ্গের মানুষ ও বিরোধী দলগুলির ওপর অত্যাচার চালাচ্ছেন পুলিশকর্মীরা। ক্ষমতায় এলে পুলিশকর্মীদের চামড়া ছাড়িয়ে নেওয়ার হুমকিও দিয়ে রেখেছেন তিনি। 

এ বিষয়ে তৃণমূলের সংক্ষিপ্ত প্রতিক্রিয়া, ‘ওনার শরীর খারাপ হয়েছে, তাই এসব আজেবাজে বলছেন।’

 

বন্ধ করুন