বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > 'দিদি' নাকি 'বোন' - ভবানীপুরে কী করবেন তৃণমূল নেতা বাবুল?
প্রিয়াঙ্কা টিবরেওয়াল এবং মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। (ফাইল ছবি, সৌজন্য এএনআই)
প্রিয়াঙ্কা টিবরেওয়াল এবং মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। (ফাইল ছবি, সৌজন্য এএনআই)

'দিদি' নাকি 'বোন' - ভবানীপুরে কী করবেন তৃণমূল নেতা বাবুল?

বিজেপি বাবুল সুপ্রিয়কে প্রচারক হিসাবে ভবানীপুরে কাজে লাগাতে চেয়েছিলেন। কিন্তু বাবুল তাতে রাজি হননি, উৎসাহও দেখাননি।

‌গত বিধানসভা ভোটের পর উপ-নির্বাচনের ময়দানে নেমে তাঁকে যে একেবারে বাউন্সারের সামনে পড়তে হবে, তা কে জানত। একসময়ে যাঁর হাত ধরে তিনি বিজেপিতে এসেছিলেন, সেই ব্যক্তিই এখন বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে। ব্যক্তির নাম বাবুল সুপ্রিয়। আর বাউন্সারের সামনে যাকে পড়তে হয়েছে, তাঁর নাম ভবানীপুর কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী প্রিয়াঙ্কা টিবরেওয়াল। কয়েক ঘণ্টা চুপ থাকার পর এই বিষয়ে প্রিয়াঙ্কার প্রতিক্রিয়া, ‘‌বোনের বিরুদ্ধে প্রচার করবেন বলে মনে হয় না।’‌

প্রিয়াঙ্কা ভোটে দাঁড়ানোর পর প্রথম শুভেচ্ছা এসেছিল বাবুলের তরফ থেকে। টুইটে প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয় জানিয়েছিলেন, ‘‌ব্যক্তিগত আইনজীবীকে একদা আমি রাজনীতিতে আসার জন্য উৎসাহিত করেছিলাম। ২০১৪ সাল থেকে তিনি অনেক আইনি যুদ্ধ আমার হয়ে লড়েছেন। জেতা, হারাটা বড় কথা নয়। লড়াই করাটাই আসল কথা। যুব সম্প্রদায় যাতে রাজনীতিতে এগিয়ে আসুক, আমি সবসময় উৎসাহিত করেছি। আমার আশা, আগামিদিনে তাঁরাই বিজেপিকে আরও গর্বিত করবে।’‌ ভবানীপুরে উপ-নির্বাচনের আগে বাবুল যখন বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন, সেখানে সেই ব্যক্তিগত সম্পর্ককেই তুলে আনলেন প্রিয়াঙ্কা। এদিন প্রচারে বেরিয়ে বেরিয়ে সেই ব্যক্তিগত সম্পর্ককে টেনে আনলেন প্রিয়াঙ্কা।

তবে ভবানীপুরে প্রচার সম্পর্কে বাবুল সুপ্রিয় অবশ্য জানিয়েছেন, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাউকে লাগে না। তিনি একাই একশো। তবে দল বললে তিনি প্রচারে যাবেন। উল্লেখ্য, এর আগে বিজেপি বাবুল সুপ্রিয়কে প্রচারক হিসাবে ভবানীপুরে কাজে লাগাতে চেয়েছিলেন। কিন্তু বাবুল তাতে রাজি হননি, উৎসাহও দেখাননি।

বন্ধ করুন