বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > ভবানীপুরে 'ভোট পরবর্তী হিংসা' ইস্যু,টিবরেওয়ালের নেতৃত্বে পথে মৃত কর্মীদের পরিবার
প্রিয়াঙ্কা টিবরেওয়াল। ছবি সৌজন্যে ইউটিউব 
প্রিয়াঙ্কা টিবরেওয়াল। ছবি সৌজন্যে ইউটিউব 

ভবানীপুরে 'ভোট পরবর্তী হিংসা' ইস্যু,টিবরেওয়ালের নেতৃত্বে পথে মৃত কর্মীদের পরিবার

  • ভবানীপুর উপনির্বাচনের প্রচারকে কেন্দ্র করে পারদ চড়েছে।

ভবানীপুরের উপনির্বাচনে 'ভোট পরবর্তী হিংসা' ইস্যু নিয়ে সরব হল বিজেপি। কয়েকদিন আগেই মগরাহাট পশ্চিম কেন্দ্রের বিজেপির প্রার্থীর দেহ নিয়ে এসে কালীঘাটে বিক্ষোভ দেখিয়েছিল বিজেপি। আর এবার 'ভোট পরবর্তী হিংসা'য় মৃত বিজেপি কর্মীদের পরিবার পথে নামল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বাড়ি থেকে ঢিল ছোড়া দূরত্বে।

শনিবার হাজরা মোড়ে মৃত বিজেপি কর্মীদের পরিবারের সদস্যদের নিয়ে বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন প্রিয়াঙ্কা টিবরেওয়াল, অর্জুন সিং, সুকান্ত মজুমদাররা। ভবানীপুর উপনির্বাচনে যে 'ভোট পরবর্তী হিংসা'কে বড় ইস্যু করা হবে, সেই ইঙ্গিত প্রথম থেকেই দিয়েছিল বিজেপি। উপনির্বাচনের প্রচারকে কেন্দ্র করে ক্রমশ পারদ চড়ছে। সেই আবহে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে অস্বস্তিতে ফেলতে হাজরা মোড়ে হিংসার শিকার পরিবারকে নিয়ে পথে নামে বিজেপি।

এর আগে ২৩ সেপ্টেম্বর নব নির্বাচিত রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদারের নেতৃত্বে বিজেপি নেতা মানস সাহার মৃতদেহ তৃণমূল নেত্রীর বাড়ির কাছে রাস্তায় রেখে দেয় বিজেপি কর্মী-সমর্থকেরা। তারপর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে স্লোগান-সহ বিক্ষোভ দেখাতে থাকে তারা। অভিযোগ, বিধানসভার ফল প্রকাশের দিন তাঁর উপর হামলা হয়। তারপর থেকে অসুস্থ ছিলেন তিনি। ২২ সেপ্টেম্বর ঠাকুরপুকুরের একটি বেসরকারি হাসপাতালে তিনি মারা যান।

এদিকে এই বিক্ষোভের পালটা তোপ দেগেছেন মমতাও। উপনির্বাচনের প্রচারে তৃণমূল নেত্রী বলেন, 'আমার বাড়ির সামনে ডেডবডি নিয়ে চলে যাচ্ছ। আর আমি যদি তোমার বাড়ির সামনে একটা কুকুরের ডেডবডি পাঠিয়ে দিই। ভালো হবে? মেশিনারি আমার কাছে নেই? এক সেকেন্ড লাগবে পচা কুকুর তোমার বাড়ির সামনে ফেলে আসতে। তারপর তুমি ১০ দিন গন্ধে খেতে পাবে না।' মমতার এই মন্তব্য ঘিরেও সমালোচনা শুরু হয়েছে। এই ম্তব্য করায় মমতাকে তোপ দেগেছেন বিজেপি নেতা অমিত মালব্য।

 

বন্ধ করুন