পার্ক সার্কাসে বিক্ষোভরত মুসলিম মহিলারা (REUTERS)
পার্ক সার্কাসে বিক্ষোভরত মুসলিম মহিলারা (REUTERS)

পার্ক সার্কাসের আন্দোলনকারীরা আসলে অনুপ্রবেশকারী বাংলাদেশি মুসলমান: রাহুল সিনহা

  • রাহুলের মন্তব্য ঘিরে বিভ্রান্তি

দিল্লির শাহিন বাগ, কলকাতার পার্ক সার্কাসে CAA বিরোধী আন্দোলনকারীদের বাংলাদেশি মুসলমান বললেন বিজেপি নেতা রাহুল সিনহা। রবিবার সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে একথা বলেন তিনি।

এদিন রাহুলবাবু বলেন, দিল্লির শাহিন বাগ, ‘কলকাতার পার্ক সার্কাসে যারা বসে আছে তারা সব বাংলাদেশি মুসলমান। এরা বিনা অনুমতিতে এদেশে ঢুকেছে। ভারতের পতাকা হাতে নেওয়ার কোনও অধিকার নেই এদের। এরাই দেশ ভাগ করতে চায়। জেএনইউ থেকে আজাদির স্লোগান ওঠে এদের জন্যই।‘

বলে রাখি, CAA-র বিরোধিতায় গত কয়েক সপ্তাহ ধরে আন্দোলন চলছে কলকাতার পার্ক সার্কাস ময়দানে। আন্দোলনের নেতৃত্বের রয়েছেন মূলত মুসলিম মহিলারা। ইতিমধ্যে আন্দোলনকারীদের সমর্থন জানিয়ে সভাস্থলে হাজির হয়েছেন বহু বিদ্বজ্জন। এসেছেন সমাজসেবী মেধা পাটেকর, প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী পি চিদাম্বরম।

আন্দোলনকারীদের দাবি, CAA সাম্প্রদায়িক বৈষম্যমূলক। এই আইন বাতিল করতে হবে। তাদের অভিযোগ, মুখে CAA-র বিরোধিতার কথা বললেও আন্দোলনকারীদের কোনও রকম সহযোগিতা করছে না রাজ্য সরকার। এমনকী ধরনামঞ্চে সামিয়ানা পর্যন্ত টাঙাতে দেওয়া হয়নি দীর্ঘদিন।

ওদিকে একই রকম আন্দোলন চলছে দিল্লির শাহিনবাগে। সেখানেও CAA-র বিরুদ্ধে ধরনায় সামিল হয়েছেন হাজার হাজার মুসলিম। সেই আন্দোলনও বিদ্বজ্জনদের একাংশের সমর্থন পেয়েছে। কিন্তু বিজেপির দাবি, পয়সা দিয়ে শাহিন বাগে ভিড় বাড়াচ্ছে দিল্লির বিরোধী দলগুলি।

এখানেই তৈরি হচ্ছে ধন্দ। কারণ, রাহুলবাবুর কথা অনুসারে শাহিন বাগ ও পার্ক সার্কাসের আন্দোলনকারীরা বাংলাদেশি। তাদের টাকা দেওয়া হচ্ছে বলে কোনও দাবি করেননি তিনি। ওদিকে তারই দলের দিল্লির নেতারা বলছেন টাকা দিয়ে লোক জড়ো করছে বিরোধীরা।

বন্ধ করুন