বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > Izzat Monthly Pass: ‘‌ইজ্জত’‌ পাস তুলেই দিচ্ছে রেলমন্ত্রক, মমতার চালু করা স্কিম বন্ধে চিঠি সাংসদকে

Izzat Monthly Pass: ‘‌ইজ্জত’‌ পাস তুলেই দিচ্ছে রেলমন্ত্রক, মমতার চালু করা স্কিম বন্ধে চিঠি সাংসদকে

‘‌ইজ্জত পাস’‌ বন্ধ করার পথে হাঁটল রেলমন্ত্রক।

মাসিক আয় দেড় হাজার টাকার মধ্যে এমন অসংগঠিত ক্ষেত্রের শ্রমিক–কর্মচারীদের কথা ভেবেই শর্তসাপেক্ষে এই পরিষেবা চালু করেছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এখন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অধিকাংশ রেল প্রকল্পে বরাদ্দ দেওয়া বন্ধ করার অভিযোগ উঠেছে। প্রকল্প বন্ধও করে দেওয়া হয়েছে। মেট্রো রেলের উদ্বোধনে পর্যন্ত ডাকা হয়নি।

রেলমন্ত্রী থাকাকালীন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের চালু করা ‘‌ইজ্জত’‌ মান্থলি সিজন টিকিট বা ‘‌ইজ্জত পাস’‌ বন্ধ করার পথে হাঁটল রেলমন্ত্রক। ইজ্জত মান্থলি সিজন টিকিট (‌এমএসটি)‌ নিয়ে কয়েকদিন আগে তৃণমূল কংগ্রেস সাংসদ ডাঃ শান্তনু সেনকে একটি চিঠি লিখেছেন কেন্দ্রীয় রেল রাষ্ট্রমন্ত্রী রাওসাহেব পাটিল দানভে। কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর চিঠিতেই ইজ্জত পাস নিয়ে রেলমন্ত্রকের অবস্থান স্পষ্ট করা হয়েছে। শান্তনু সেনকে পাঠানো চিঠিতে কেন্দ্রীয় রেল রাষ্ট্রমন্ত্রী জানিয়েছেন যে, এই মুহূর্তে নতুনভাবে ইজ্জত চালু করা যুক্তিযুক্ত নয়।

গত ৮ ডিসেম্বর রাজ্যসভার জিরো আওয়ারে ইজ্জত মান্থলি সিজন টিকিট পরিষেবা চালু করার বিষয়টি তুলেছিলেন তৃণমূল কংগ্রেস সাংসদ শান্তনু সেন। প্রায় তিন মাস পর চিঠি পাঠিয়ে সেই প্রশ্নের জবাব দিয়েছে রেলমন্ত্রক। রেল রাষ্ট্রমন্ত্রী চিঠিতে জানান, ২০১৯–২০ আর্থিক বছরে ট্রেনের যাত্রী টিকিটে প্রায় ৫৯ হাজার ৮৩৭ কোটি টাকার ভর্তুকি দেওয়া হয়েছে। এই ভর্তুকি সব ট্রেন যাত্রী পেয়েছেন। দেশজুড়ে করোনাভাইরাস মহামারির জেরে প্রবীণ নাগরিক–সহ অন্য যাত্রীদের ‘‌অপ্রয়োজনে’‌ ট্রেন যাত্রা বন্ধ করতে ২০২০ সালের ২০ মার্চ থেকে টিকিটে কনসেশন বন্ধ করে দেয় রেলমন্ত্রক। যা নিয়ে সমালোচনাও হয়েছিল।

এদিকে শুধু শারীরিক প্রতিবন্ধী, ছাত্রছাত্রী, রোগীদের কয়েকটি ক্যাটেগরিতে শর্তসাপেক্ষে ভর্তুকি চালু রাখা হয়। কিন্তু দেশে করোনাভাইরাস পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়ে গেলেও এখনও পর্যন্ত ট্রেনের টিকিটে ছাড় আর চালু হয়নি। কেন্দ্রীয় রেলমন্ত্রীর চিঠিতে ইজ্জত মান্থলি বন্ধের উপরই সিলমোহর পড়ল। ২০০৯–১০ আর্থিক বছরের রেল বাজেট ঘোষণার সময় ইজ্জত মান্থলি চালু করেছিলেন তৎকালীন রেলমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ওই ঘোষণার প্রেক্ষিতে ২০০৯ সালের ১৬ জুলাই সার্কুলার জারি করে রেলমন্ত্রক ওই বছরের ১ অগস্ট থেকে তা কার্যকর করার কথা জানায়।

অন্যদিকে প্রধানত মাসিক আয় দেড় হাজার টাকার মধ্যে এমন অসংগঠিত ক্ষেত্রের শ্রমিক–কর্মচারীদের কথা ভেবেই শর্তসাপেক্ষে এই পরিষেবা চালু করেছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এখন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অধিকাংশ রেল প্রকল্পে বরাদ্দ দেওয়া বন্ধ করার অভিযোগ উঠেছে। প্রকল্প বন্ধও করে দেওয়া হয়েছে। মেট্রো রেলের উদ্বোধনে পর্যন্ত ডাকা হয়নি বাংলার মুখ্যমন্ত্রীকে। অথচ তিনিই জমি জোগাড় করে রেলের হাতে তুলে দিয়েছিলেন। এবার ইজ্জত মান্থলিও বন্ধ হয়ে যাচ্ছে। যা একসময় জনপ্রিয় হয়ে উঠেছিল।

এই খবরটি আপনি পড়তে পারেন HT App থেকেও। এবার HT App বাংলায়। HT App ডাউনলোড করার লিঙ্ক https://htipad.onelink.me/277p/p7me4aup

বাংলার মুখ খবর

Latest News

TMC's Shahid Dibas LIVE: একুশের মঞ্চ থেকে ছাব্বিশের বার্তা মমতার? তাকিয়ে কর্মীরা শক্তিগড়ে এসব কী চলছে? ছত্রাকে ভরা বস্তা বস্তা ল্যাংচা মাটিতে পুঁতলেন আধিকারিকরা Paris Olympics-এ কটি দেশ আর ক'জন প্রতিযোগী অংশ নেবে?কী চমক থাকছে?জানুন খুঁটিনাটি ধন যোগের কারণে ধনু সহ ৩ রাশির ভাগ্য হবে উজ্জ্বল, দেখুন সাপ্তাহিক ট্যারো রাশিফল সঞ্জীব গোয়েঙ্কার লখনউ ছাড়ছেন কেএল রাহুল! IPL 2025-এ খেলবেন এই দলের হয়ে- রিপোর্ট আলসারের সমস্যায় ভুগছেন? ঘরোয়া কয়েকটি জিনিসেই কমতে পারে ভোগান্তি বাংলাদেশে কার্ফুতেও হিংসার বলি ১০, আজ সুপ্রিম কোর্টে কোটা মামলার শুনানি বাংলার সাপ কামড়ালে তার চিকিৎসা করতে অনেকাংশেই ব্যর্থ প্রচলিত ওষুধ! সোহিনীকে খাইয়ে দিচ্ছেন শোভন, বিয়ের পর প্রকাশ্যে আইবুড়োভাতের ছবি!মেনুতে কী ছিল দাম বাড়িয়েও পুরনো ট্যারিফ ফিরিয়ে আনল জিও, সঙ্গে বাড়ল প্ল্যানের ভ্যালিডিটি!

Copyright © 2024 HT Digital Streams Limited. All RightsReserved.