ছবিটি প্রতীকী (সৌজন্য এএনআই)
ছবিটি প্রতীকী (সৌজন্য এএনআই)

বড়দিনে বৃষ্টির আশঙ্কা, জাঁকিয়ে ঠান্ডা নববর্ষে

  • শুক্রবার থেকে আকাশ পরিষ্কার হতে শুরু করবে। মেঘ কেটে গেলেই ফের বিনা বাধায় রাজ্যে ঢুকবে উত্তুরে হাওয়া। ফের জাঁকিয়ে শীত পড়বে কলকাতা-সহ পুরো রাজ্যে।

বড়দিনে জাঁকিয়ে শীত থেকে বঞ্চিত হতে চলেছে রাজ্য। তবে নববর্ষে তা সুদে-আসলে মিটবে। এমনটাই জানাচ্ছে আবহাওয়া দফতর।

গত সপ্তাহের মাঝামাঝি সময় একধাক্কায় রাজ্যের পারদ অনেকটাই নেমে গিয়েছিল। সঙ্গে বইছিল কনকনে উত্তুরে হাওয়া। তাই চলতি বছর বড়দিনে জাঁকিয়ে শীত থাকবে বলে আশা করেছিলেন রাজ্যবাসী। কিন্তু, তাতে বাধ সেধেছে পূবালি বাতাস। রাজ্যে ঢুকছে জলীয় বাষ্প। তৈরি হচ্ছে ঘন কুয়াশা। আকাশও মেঘলা থাকছে। তার জেরে গত কয়েকদিন ধরেই কলকাতার পারদ উর্ধ্বগামী। আজও কলকাতার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১৪.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। সকাল থেকেই ঘন কুয়াশার আচ্ছাদনে রয়েছে কলকাতা, পুরুলিয়া, মুর্শিদাবাদ, হাওড়া-সহ বিভিন্ন জেলা। তার জেরে ব্যাহত হয়েছে উড়ান পরিষেবা।

আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, একটি পশ্চিমী ঝঞ্ঝা ক্রমশ পূর্বদিকে সরছে। আরব সাগরেও একটি নিম্নচাপ তৈরি হয়েছে। সেই নিম্নচাপের অক্ষরেখার কারণে একটি বিপরীত ঘূর্ণাবর্ত বঙ্গোপসাগরের দিকে অগ্রসর হচ্ছে। অবস্থান পরিবর্তন হওয়ায় ওই বিপরীত ঘূর্ণাবর্তের প্রভাবে স্থলভাগে জলীয় বাষ্প ঢুকে পড়বে। ফলে সম্পূর্ণ বিপরীতধর্মী দুই বাতাসের মুখোমুখি সংঘর্ষ হবে। তৈরি হবে বৃষ্টির মেঘ। তার জেরেই আগামীকাল আকাশ মেঘলা থাকবে।

কলকাতাতে বৃষ্টির সম্ভাবনা বেশি না হলেও রাজ্যের পশ্চিমাঞ্চলে বৃষ্টি হতে পারে। বৃহস্পতিবার কলকাতা-সব উত্তর ও দক্ষিণবঙ্গের প্রায় প্রতিটি জেলাতেই বৃষ্টি হবে। শুক্রবার থেকে আকাশ পরিষ্কার হতে শুরু করবে। মেঘ কেটে গেলেই বিনা বাধায় রাজ্যে ঢুকবে উত্তুরে হাওয়া। ফের জাঁকিয়ে শীত পড়বে কলকাতা-সহ পুরো রাজ্যে।

বন্ধ করুন