বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > শীত বিদায়ের পরই আগমন বৃষ্টির, রাজ্যজুড়ে বৃষ্টির পূর্বাভাস আবহাওয়া দফতরের
(ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)
(ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)

শীত বিদায়ের পরই আগমন বৃষ্টির, রাজ্যজুড়ে বৃষ্টির পূর্বাভাস আবহাওয়া দফতরের

  • এবার মরশুম বদলের মুখে রাজ্যজুড়ে বিক্ষিপ্ত বৃ্ষ্টির পূর্বাভাস মিলেছে।

আর কোনও লুকোচুরি নেই। শীত বিদায় নিচ্ছে বঙ্গ থেকে এটা একেবারে নিশ্চিত। কিন্তু দোসর হয়ে দেখা দিতে চলেছে বৃষ্টি বলে আবহাওয়া দফতর সূত্রে খবর। শীত বিদায় নিচ্ছে বলেই চড়ছে তাপমাত্রার পারদ। এবার মরশুম বদলের মুখে রাজ্যজুড়ে বিক্ষিপ্ত বৃ্ষ্টির পূর্বাভাস মিলেছে। সোমবার সকাল থেকেই মেঘলা আকাশ দেখা দিয়েছে। উত্তর–দক্ষিণবঙ্গে বিক্ষিপ্ত বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে।

কলকাতায় ইতিমধ্যেই সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২০ ডিগ্রি ছাড়িয়েছে। তবে কয়েকটি জেলায় এখনও অনুভূত হচ্ছে শীতের আমেজ। সকালের দিকে হালকা কুয়াশা, আর বেলা বাড়লেই চড়া তাপমাত্রা। আলিপুর আবহাওয়া দফতর সূত্রে খবর, আগামী তিনদিন বৃষ্টির সম্ভাবনা উত্তরবঙ্গের দার্জিলিং, কালিম্পং–সহ পার্বত্য এলাকায়। একই সম্ভাবনা দেখা যাচ্ছে দক্ষিণবঙ্গেও। বৃষ্টি হতে পারে পুরুলিয়া, বাঁকুড়া, পশ্চিম বর্ধমান, পূর্ব–পশ্চিম মেদিনীপুর, ঝাড়গ্রাম এবং হাওড়ায়। কিন্তু দুই ২৪ পরগনা ও কলকাতায় বৃষ্টির সম্ভাবনা নেই। সুতরাং গরম সহ্য করতে হবে কল্লোলিনীকে।

সোমবার রাজ্যে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২০.৮ ডিগ্রি সেন্টিগ্রেড রয়েছে। রবিবার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ২৯.২ ডিগ্রি। বাতাসে জলীয় বাষ্পের সর্বোচ্চ পরিমাণ ৯৮ শতাংশ। নতুন করে পশ্চিমী ঝঞ্ঝা ঢুকতে পারে শুক্রবার থেকে। আগামী সপ্তাহ থেকে ফের বাড়বে তাপমাত্রার পারদ। এই বৃষ্টিতে কলকাতার পারদ পতনের তেমন সম্ভাবনা নেই। ফাল্গুন মাস পড়ে গিয়েছে। সুতরাং ধীরে ধীরে গরম অনুভব করতে হবে তিলোত্তমার বাসিন্দাদের।

বন্ধ করুন