বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > Rainfall: অবশেষে স্বস্তির বৃষ্টি কলকাতায়, ঝোড়ো হাওয়া, সতর্কতা হুগলিতেও
কলকাতার বিভিন্ন প্রান্তে এদিন ঝড় বৃষ্টি হয়েছে। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্যে হিন্দুস্তান টাইমস)
কলকাতার বিভিন্ন প্রান্তে এদিন ঝড় বৃষ্টি হয়েছে। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্যে হিন্দুস্তান টাইমস)

Rainfall: অবশেষে স্বস্তির বৃষ্টি কলকাতায়, ঝোড়ো হাওয়া, সতর্কতা হুগলিতেও

  • স্বস্তির বৃষ্টি কলকাতায়।এদিন সন্ধ্যায় কলকাতার বিভিন্ন প্রান্তে ঝড়বৃষ্টি শুরু হয়। দীর্ঘ দাবদাহের পর অবশেষে স্বস্তি। অত্যন্ত খুশি কলকাতার বাসিন্দারা।

দীর্ঘ প্রতীক্ষার অবসান। অবশেষে কলকাতায় বৃষ্টি। স্বস্তির বৃষ্টি। সুখের বৃষ্টি। সন্ধ্যা ৭টা ২০ থেকে ঝমঝম করে বৃষ্টি। সঙ্গে ঠান্ডা হাওয়া। টানা গরম থেকে বাঁচলেন কলকাতাবাসী। বৃষ্টির সঙ্গে ঝোড়ো হাওয়াও বইতে থাকে। এদিকে স্বস্তির বৃষ্টিকে স্পর্শ করতে অনেকের উৎসাহ ছিল চোখে পড়ার মতো। কলকাতা এয়ারপোর্ট ও সংলগ্ন এলাকা, নাগেরবাজার, দমদমের একাংশে, বালিগঞ্জে বেহালা, সল্টলেকে এদিন বৃষ্টি হয়েছে। বৃষ্টির সঙ্গে বিদ্যুতের ঝলক ও মেঘ ডাকার আওয়াজও শুনতে পাওয়া যায়।

তবে প্রচন্ড গরমের পরে এদিনের বৃষ্টিকে ঘিরে বাসিন্দাদের মধ্যে খুশির জোয়ার ওঠে। এদিকে আবহাওয়া দফতর জানিয়েছে, আগামী কয়েক ঘণ্টা বজ্র বিদ্যুৎসহ ঝড় বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। সন্ধ্যা ৬টা ২৫ মিনিটের পর থেকে পরবর্তী ২-৩ ঘণ্টা মাঝারি বৃষ্টি হবে বলে জানানো হয়েছিল। হুগলি জেলার একাংশে এই ঝড় বৃষ্টি হতে পারে। বজ্র বিদ্যুৎ সহ ঝড় বৃষ্টির সময় বাসিন্দাদের নিরাপদ জায়গায় থাকার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

কলকাতায় এদিন সকাল থেকে আকাশ কিছুটা মেঘলা ছিল। তবে মাঝেমধ্য়ে চড়া রোদও বের হয়। আর সেই রোদের তীব্রতায় বাইরে বের হওয়া অত্যন্ত কষ্টকর ছিল। তার মধ্যেই সন্ধ্য়া হতেই প্রথমে ঠান্ডা হাওয়া। আর তারপরই অঝোরধারায় বৃষ্টি। প্রচন্ড গরমের পরে এই বৃষ্টির জেরে অত্যন্ত খুশি বাসিন্দারা। ঝোড়ো হাওয়ায় কিছু জায়গায় গাছের ডালও ভেঙে গিয়েছে। রাস্তাতেও সামান্য জল জমে যায়। তবে হাঁসফাঁস করা গরম থেকে বাঁচতে গত কয়েকদিন ধরে যেন এই বৃষ্টির অপেক্ষাতেই দিন গুনছিলেন কলকাতাবাসী।

বন্ধ করুন