বাড়ি ফিরছেন প্রবাসী শ্রমিকরা।  (PTI)
বাড়ি ফিরছেন প্রবাসী শ্রমিকরা। (PTI)

সোমবার থেকে খুলবে দোকান, চলবে বাস, এক ঝলকে দেখে নিন মুখ্যমন্ত্রীর ঘোষণা

  • তবে সবই করতে হবে সোশ্যাল ডিসট্যান্সিংয়ের নিয়ম মেনে।

সোমবার থেকে পশ্চিমবঙ্গে একাধিক ক্ষেত্রে লকডাউনে ছাড় দেওয়ার কথা ঘোষণা করল রাজ্য সরকার। বুধবার নবান্নে এই ঘোষণা করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বলেন, গ্রিন ও অরেঞ্জ জোনে খুলবে দোকান, চালু হবে বাস, চালু হবে কল কারখানা ও নির্মাণকাজ। তবে সবই করতে হবে সোশ্যাল ডিসট্যান্সিংয়ের নিয়ম মেনে।

এক নজরে মুখ্যমন্ত্রীর ঘোষণা

-সোমবার থেকে গ্রিন ও অরেঞ্জ জোনে পুলিশের অনুমতি নিয়ে ছোট দোকান খোলা যাবে।

-শপিং কমপ্লেক্সে অবস্থিত দোকান বা বাজারের মধ্যে দোকান খোলা যাবে না।

-সমস্ত দোকানে হোম ডেলিভারির ব্যবস্থা করতে হবে।

-খোলা যাবে ইলেক্ট্রনিক্স, স্টেশনারি, বই, মোবাইল, ব্যাটারি, হার্ডঅয়্যার, লন্ড্রি, চা পানের দোকান ও রেস্টুরেন্ট।

-সব ক্ষেত্রে হোম ডেলিভারি বাধ্যতামূলক। চায়ের দোকানে বসে আড্ডা দেওয়া নিষিদ্ধ।

-প্রশাসনের অনুমতি নিয়ে সরকারি ও বেসরকারি ঠিকাদাররা নির্মাণকাজ শুরু করতে পারবেন। তবে সেক্ষেত্রে শ্রমিকদের থাকার ব্যবস্থা করতে হবে ঠিকাদারকে। মানতে হবে লকডাউনের বিধি। কোন কোন কাজ শুরু করা যাবে তা ঠিক করবেন জেলাশাসক ও পুলিশ সুপাররা।

-এছাড়া গ্রিন জোনে চালানো যাবে বাস। তবে জেলার বাইরে বেরনো যাবে না। একটি বাসে ২০ জনের বেশি যাত্রী তোলা যাবে না। চালক ও কনডাক্টরকে সোশ্যাল ডিসট্যান্সিংয়ের বিধি মানতে হবে। নিয়মিত জীবাণুমুক্ত করতে হবে বাস। কলকাতায় চলবে ট্যাক্সি।

মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, এখনই হকার মার্কেট বা ফুটপাথের দোকান খোলা যাবে না।

কনটেনমেন্ট এলাকায় চলবে টোটাল লকডাউন। পরশু এই নিয়ে লিখিত নির্দেশিকা জারি করবে নবান্ন।



বন্ধ করুন