বাড়ি > বাংলার মুখ > কলকাতা > খুনি স্বামীর শাস্তি চাই, বললেন প্রিয়াঙ্কা খুনে অভিযুক্তর গর্ভবতী স্ত্রী
অভিযুক্ত জয়ন্ত হালদারের স্ত্রী।
অভিযুক্ত জয়ন্ত হালদারের স্ত্রী।

খুনি স্বামীর শাস্তি চাই, বললেন প্রিয়াঙ্কা খুনে অভিযুক্তর গর্ভবতী স্ত্রী

  • জয়ন্তর স্ত্রী বলেন, ‘শনিবার সকালে যে ও কখন বাড়ি থেকে বেরিয়েছে তা আমি জানি না। পরে জানতে পারি প্রিয়াঙ্কা খুন হয়েছে।

রিজেন্ট পার্কে কলেজছাত্রী প্রিয়াঙ্কা পুরকায়েত খুনে উঠে এল চাঞ্চল্যকর তথ্য। জানা গিয়েছে, সোমবারই প্রসবের নির্ধারিত দিন খুনি জয়ন্ত হালদারের গর্ভবতী স্ত্রীর সোমবার প্রসবের দিন। এমনকী শুক্রবার রাতেও স্ত্রীর পাশে শুয়ে সন্তানের জন্য পরিকল্পনা করে সে। ভোরে সবার অজান্তে বাড়ি থেকে বেরিয়ে প্রেমিকা প্রিয়াঙ্কাকে গুলি করে খুন করে জয়ন্ত। 

জয়ন্তর স্ত্রী জানিয়েছেন, প্রিয়াঙ্কার সঙ্গে স্বামীর সম্পর্কের কথা জানা ছিল তাঁর। তার পরও স্বামীর ঘর করছিলেন তিনি। এর মধ্যে অন্তসত্বা হয়ে পড়েন খুনি জয়ন্তর স্ত্রী। অন্য দিনের মতো শুক্রবার রাতেও বাড়ি ফিরে খেয়ে দেয়ে শুয়ে পড়ে সে। সোমবার স্ত্রীর প্রসব। তার আগে নানা পরিল্পনা করে স্ত্রীর সঙ্গে। এর পর ঘুমিয়ে পড়ে স্বামী স্ত্রী। 

জয়ন্তর স্ত্রী বলেন, ‘শনিবার সকালে যে ও কখন বাড়ি থেকে বেরিয়েছে তা আমি জানি না। পরে জানতে পারি প্রিয়াঙ্কা খুন হয়েছে। ও যদি খুন করে থাকে তাহলে ওর কঠিন শাস্তি চাই।’

শনিবার ভোরে কলকাতার রিজেন্ট পার্ক থানা এলাকার আনন্দপল্লিতে খুন হন প্রিয়াঙ্কা পুরকায়েত নামে ২০ বছর বয়সী এক কলেজছাত্রী। ঘরে ঢুকে ঘুমন্ত অবস্থায় তাঁর মাথায় গুলি করে খুন করে আততায়ী। পিতৃহীন প্রিয়াঙ্কা ওই বাড়িতে পিসি ও মায়ের সঙ্গে থাকতেন। স্থানীয় কলেজে পড়াশুনো করতেন তিনি। প্রিয়াঙ্কার পিসি জানিয়েছেন, এলাকার ছেলে জয়ন্ত হালদার ঘরে ঢুকে খুন করেছে প্রিয়াঙ্কাকে। 

 

বন্ধ করুন