বাড়ি > বাংলার মুখ > কলকাতা > ইন্টারনেটে ভিডিয়ো দেখে বাড়িতে বসেই আগ্নেয়াস্ত্র বানিয়ে প্রেমিকাকে খুন!
অভিযুক্ত জয়ন্ত হালদারকে আদালতে পেশ করছে পুলিশ
অভিযুক্ত জয়ন্ত হালদারকে আদালতে পেশ করছে পুলিশ

ইন্টারনেটে ভিডিয়ো দেখে বাড়িতে বসেই আগ্নেয়াস্ত্র বানিয়ে প্রেমিকাকে খুন!

  • পুলিশের দাবি, জেরায় জয়ন্ত জানিয়েছে, ইন্টারনেটে ভিডিয়ো দেখে বাড়িতেই আগ্নেয়াস্ত্রটি বানিয়েছিল সে। লোহার নল ও অন্যান্য যন্ত্রাংশ জুড়ে নিজেই সে তৈরি করেছিল বন্দুকটি।

রিজেন্ট পার্কে তরুণী প্রিয়াঙ্কা পুরকায়েত খুনে উঠে এল চাঞ্চল্যকর তথ্য। পুলিশের দাবি, রীতিমতো পরিকল্পনা করে প্রিয়াঙ্কাকে খুন করে তার প্রাক্তন প্রেমিক জয়ন্ত হালদার। আর সেজন্য বাড়িতেই বন্দুক বানিয়েছিল সে। যা জেনে হতবাক দুঁদে গোয়েন্দারাও। 

সাধারণত গুলি করে খুনে ব্যবহৃত হয় দেশি অবৈধ আগ্নেয়াস্ত্র। যাকে চলিত কথায় বলে ওয়ান শটার। ফলে এই ধরণের খুনের ঘটনায় তদন্তকারীদের প্রথম লক্ষ্য থাকে অস্ত্রটি উদ্ধার করা। সঙ্গে সেই অস্ত্র আততায়ী কোথা থেকে পেয়েছে তাও জেরা করে বার করেন গোয়েন্দারা। জিজ্ঞাসাবাদের সেই পর্যায়ে খুনি জয়ন্তর মুখে আগ্নেয়াস্ত্রের বৃত্তান্ত শুনে অবাক পুলিশকর্তারা। 

পুলিশের দাবি, জেরায় জয়ন্ত জানিয়েছে, ইন্টারনেটে ভিডিয়ো দেখে বাড়িতেই আগ্নেয়াস্ত্রটি বানিয়েছিল সে। লোহার নল ও অন্যান্য যন্ত্রাংশ জুড়ে নিজেই সে তৈরি করেছিল বন্দুকটি। বাড়িতেই বানিয়েছিল বারুদ। আর গুলি হিসাবে ব্যবহার করেছিল বল বিয়ারিং। 

ইন্টারনেটে ভিডিয়ো দেখে আগ্নেয়াস্ত্র বানানোর কথা জেনে সিঁদুরে মেঘ দেখছেন গোয়েন্দারা। এই ঘটনা প্রবণতায় পরিণত হলে ভয়াবহ কাণ্ড ঘটতে পারে বলে মনে করছেন তাঁরা। 

ওদিকে জয়ন্ত আগ্নেয়াস্ত্র বানানোর কথা জানানোয় মনোবিদরা একটা বিষয়ে স্পষ্ট হয়েছেন। তাঁদের দাবি, এতে স্পষ্ট যে রীতিমতো পরিকল্পনা করে প্রিয়াঙ্কাকে খুন করেছে জয়ন্ত। যা তার অপরাধ মনস্কতার একটা দিকের প্রতিফলন বলে মনে করছেন তাঁরা। 

জয়ন্তকে জেরা করে একটি কালভার্টের নীচ থেকে আগ্নেয়াস্ত্রটি উদ্ধার করেছেন তদন্তকারীরা। এব্যাপারে আরও তথ্য জানতে অভিযুক্তকে জেরা চালিয়ে যাচ্ছেন গোয়েন্দারা। 

 

বন্ধ করুন