বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > প্রেমে ‘‌প্রত্যাখান’, শহরের ক্যাফের শৌচালয়ে আত্মঘাতী কর্মী
প্রেমে প্রত্যাখান, Cafe-‌র শৌচালয়ের মধ্যে ধারাল অস্ত্রে কুপিয়ে আত্মঘাতী কর্মী। (প্রতীকী ছবি)
প্রেমে প্রত্যাখান, Cafe-‌র শৌচালয়ের মধ্যে ধারাল অস্ত্রে কুপিয়ে আত্মঘাতী কর্মী। (প্রতীকী ছবি)

প্রেমে ‘‌প্রত্যাখান’, শহরের ক্যাফের শৌচালয়ে আত্মঘাতী কর্মী

  • পুলিশ জানিয়েছে, রোহিত নিজেকে ধারাল অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে কেটেছে। কারণ, তাঁর সারা শরীরে আঘাতের চিহ্ন পাওয়া গিয়েছে। জানা গিয়েছে, প্রণয়ঘটিত সম্পর্কের জটিলতার কারণে কয়েক দিন ধরেই তিনি মানসিক অবসাদে ভুগছিলেন। তার জেরেই আত্মঘাতী হয়েছেন বলে মনে করছেন তদন্তকারীরা।

প্রেমে প্রত্যাখিত হয়ে রেস্তোরাঁর মধ্যেই ধারাল অস্ত্র দিয়ে নিজেকে কুপিয়ে আত্মঘাতী হলেন কর্মী। বুধবার দুপুরে মর্মান্তিক এই ঘটনাটি ঘটেছে কলকাতার বসন্ত রায় রোডের একটি রেস্তোরাঁয়। সেখানকার শৌচালয় থেকে ওই যুবকের রক্তাক্ত ক্ষতবিক্ষত দেহ উদ্ধার করা হয়েছে। ঘটনার জেরে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে গোটা এলাকায়।

খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয় রবীন্দ্র সরোবর থানার পুলিশ। ওই কর্মীর দেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। প্রাথমিক তদন্তে পুলিশের অনুমান, ওই যুবক ধারাল অস্ত্র দিয়ে নিজেকে কুপিয়ে আত্মঘাতী হয়েছেন। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, মৃত ওই যুবকের নাম রোহিত অধিকারী (২৪)। মৃত ওই যুবকের বাড়ি কসবার বিবেকানন্দ পার্ক এলাকার ব্যানার্জি পাড়ায়।

ক্যাফে সূত্রে জানা গিয়েছে, বসন্ত রায় রোডের ওই ক্যাফেতে ৮ মাস আগে কাজে যোগ দিয়েছিলেন রোহিত। অন্যান্য দিনের মতো এদিনও সকাল ৮টা নাগাদ ক্যাফেতে কাজে যোগ দিয়েছিলেন রোহিত। দুপুর ১ টা নাগাদ শৌচালয় তার রক্তাক্ত দেহ পড়ে থাকতে দেখেন তার সহকর্মীরা। আতঙ্কিত হয়ে রোহিতের পরিবারকে খবর দেওয়া হয়। পরিবারের সদস্যরা ওই রেস্তোরাঁয় ছুটে এসে দেখেন, তাঁদের ছেলে শৌচালয়ের মধ্যে রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে রয়েছে। পুলিশে খবর দেওয়া হলে তাঁরা ক্যাফেতে এসে দেহটি উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠায়। হাসপাতালে নিয়ে গেলে রোহিতকে মৃত বলে ঘোষণা করেন চিকিৎসকরা।

এই ঘটনার পরই ক্ষোভে ফেটে পড়েন মৃত ওই যুবকের পরিবারের সদস্যরা। তাঁরা রবীন্দ্র সরোবর থানার সামনে বিক্ষোভ দেখান। পরে পুলিশি হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে। পুলিশ জানিয়েছে, রোহিত নিজেকে ধারাল অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে কেটেছে। কারণ, তাঁর সারা শরীরে আঘাতের চিহ্ন পাওয়া গিয়েছে। জানা গিয়েছে, প্রণয়ঘটিত সম্পর্কের জটিলতার কারণে কয়েক দিন ধরেই তিনি মানসিক অবসাদে ভুগছিলেন। তার জেরেই আত্মঘাতী হয়েছেন বলে মনে করছেন তদন্তকারীরা। অবশ্য ক্যাফের কর্মীদের জিজ্ঞাসাবাদ করে জানার চেষ্টা করা হচ্ছে যে, এই মৃত্যু পিছনে অন্য কোনও কারণ আছে কিনা। ঘটনায় ভেঙে পড়েছেন ওই যুবকের পরিবারের সদস্যরা।

 

বন্ধ করুন