বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > পার্ক সার্কাসে পুলিশকর্মীর গুলিতে মৃত্যু হাওড়ার দাসনগরের রিমা সিংহের
রাস্তায় পড়ে রয়েছে গুলিবিদ্ধ রিমা সিংহের দেহ।

পার্ক সার্কাসে পুলিশকর্মীর গুলিতে মৃত্যু হাওড়ার দাসনগরের রিমা সিংহের

  • দাসনগরে ভাড়াবাড়ির বাসিন্দা রিমা। মা - বাবা ও ভাইকে নিয়ে ছিল তাঁর পরিবার। নিহতের মা জানিয়েছেন, বেলা ১২টা নাগাদ বাড়ি থেকে বেরোয় ও। জানতাম না পার্ক সার্কাসে গিয়েছে। বিকেল ৪.২০ মিনিট নাগাদ বাড়ির মালিক খবর দেয় রিমা মারা গিয়েছে।

পার্ক সার্কাসে বাংলাদেশ উপদূতাবাসের সামনে পুলিশকর্মীর এলোপাথাড়ি গুলিতে নিহত মহিলার নাম রিমা সিংহ (২৮)। হাওড়ার দাসনগরের বাসিন্দা রিমা পেশায় একজন ফিজিওথেরাপিস্ট বলে জানিয়েছেন তাঁর মা। অনটনের পরিবারে রিমার বিয়ের কথাও চলছিল বলে জানিয়েছেন তিনি।

দাসনগরে ভাড়াবাড়ির বাসিন্দা রিমা। মা - বাবা ও ভাইকে নিয়ে ছিল তাঁর পরিবার। নিহতের মা জানিয়েছেন, বেলা ১২টা নাগাদ বাড়ি থেকে বেরোয় ও। জানতাম না পার্ক সার্কাসে গিয়েছে। বিকেল ৪.২০ মিনিট নাগাদ বাড়ির মালিক খবর দেয় রিমা মারা গিয়েছে। আমি মেনে নিতে পারছি না।

তিনি জানিয়েছেন, চরম অনটনের সংসার তাঁদের। ধারদেনা করে চলে পরিবার। বেশ কয়েকমাসের বাড়িভাড়াও বাকি। ওর বাবার কারখানা বন্ধ হয়ে গিয়েছে। রিমা কলা কলেজে সেকেন্ড ইয়ারের পর পড়াশুনো ছেড়ে দেয়। ফিজিওথেরাপির প্রশিক্ষণ নিচ্ছিল ও।

তাঁর অনুমান, সেই সূত্রেই কারও সঙ্গে দেখা করতে পার্ক সার্কাসে গিয়েছিলেন রিমা। সঙ্গে যে যুবক ছিলেন তাঁর সঙ্গেই বিয়ের কথা চলছিল তাঁর। এমনকী শুক্রবার বিকেলেও রিনার বাড়িতে আসার কথা ছিল যুবকের। কিন্তু পথেই রক্তস্নাত হল যাবতীয় স্বপ্ন।

শুক্রবার বেলা ২টো নাগাদ পার্ক সার্কাসে বাংলাদেশ উপদূতাবাসের সামনে এলোপাথাড়ি গুলি চালাতে শুরু করেন চেদুপ লেপচা নামে এক কন্সটেবল। ১০ – ১৫ রাউন্ড গুলি চালান তিনি। এর পর নিজের মাথায় গুলি করে আত্মঘাতী হন ওই পুলিশকর্মী। চেদুপ লেপচার চালানো গুলিতে ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় রিমার।

 

বন্ধ করুন