বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > করোনা সংক্রমণ রুখতে দর্শকবিহীন পুজো করার সিদ্ধন্ত সন্তোষ মিত্র স্কোয়ারের
২০১৯ সালে সন্তোষ মিত্র স্কোয়্যারের সোনার দুর্গা
২০১৯ সালে সন্তোষ মিত্র স্কোয়্যারের সোনার দুর্গা

করোনা সংক্রমণ রুখতে দর্শকবিহীন পুজো করার সিদ্ধন্ত সন্তোষ মিত্র স্কোয়ারের

  • এদিন প্রকাশিত বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘করোনা পরিস্থিতির দিকে নজর রেখে আমরা একটি বৈপ্লবিক সিদ্ধান্ত নিয়েছি। মহামারি যাতে অতিমারির দিকে না যায় সেজন্য আমরা দর্শকবিহীন পুজো করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’

ককরোনা মহামারির মধ্যে দর্শনার্থী শূন্য পুজো করার সিদ্ধান্ত নিল কলকাতার অন্যতম ঐতিহ্যবাহী পুজো সন্তোষ মিত্র স্কোয়্যার। বুধবার সন্ধ্যায় এক বিবৃতি জারি করে একথা জানিয়েছে তারা। বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়েছে,  ‘মানুষের জীবনের থেকে উৎসবের মূল্য বেশি হতে পারে না।‘

পুজোর মুখে প্রতিদিন পশ্চিমবঙ্গে বাড়ছে সংক্রমণ। পাল্লা দিয়ে বাড়ছে মৃত্যুও। এই পরিস্থিতিতে পুজোর পর ভয়ানক পরিস্থিতি তৈরি হতে চলেছে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করছেন চিকিৎসকরা। চিকিৎসকদের সেই সতর্কবাণী মনে রেখেই এই সিদ্ধান্ত বলে জানিয়েছেন পুজো কমিটির সাধারণ সম্পাদক সজল ঘোষ। 

এদিন প্রকাশিত বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘করোনা পরিস্থিতির দিকে নজর রেখে আমরা একটি বৈপ্লবিক সিদ্ধান্ত নিয়েছি। মহামারি যাতে অতিমারির দিকে না যায় সেজন্য আমরা দর্শকবিহীন পুজো করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’ বিবৃতিতে জানানো হয়েছে পুজোয় অংশগ্রহণ করতে পারবেন শুধুমাত্র পল্লিবাসীবৃন্দ। ভার্চুয়ালি ঠাকুর দেখার ব্যবস্থা করবেন উদ্যোক্তার

সন্তোষ মিত্র স্কোয়্যারের তরফে প্রকাশিত বিবৃতি। 
সন্তোষ মিত্র স্কোয়্যারের তরফে প্রকাশিত বিবৃতি। 

মধ্য কলকাতার অন্যতম বিখ্যাত পুজো সন্তোষ মিত্র স্কোয়্যারের পুজো হয় সাবেকি। এখানে প্রতিমাও হয় সাবেকি ঢঙে। তবে প্রতিমার সাজ দেখতে প্রতি বছর উপচে পড়ে ভিড়। কিন্তু করোনাকালে তা ভয়ানক হতে পারে বলে মনে করছেন উদ্যোক্তারা। 

বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, ‘সরকার যে ভাবে এই মারাত্মক মহামারির বিরুদ্ধে লড়াই করছে, আমরা আশা করব অন্যান্য পুজো কমিটিগুলিও আমাদের সিদ্ধান্তে শরিক হবে।’

 

বন্ধ করুন