বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > ফিরিয়ে আনা হল টেলিফোনিক ক্লাস, আজ থেকে চালু করছে স্কুল শিক্ষা দফতর

ফিরিয়ে আনা হল টেলিফোনিক ক্লাস, আজ থেকে চালু করছে স্কুল শিক্ষা দফতর

টেলিফোনে ক্লাস শুরু (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)

শুধু রবিবার এই পন্থা বন্ধ থাকবে। বাকি সব দিন ফোন করলেই অভিজ্ঞ শিক্ষকদের কাছ থেকে নিতে পারবে পাঠ পড়ুয়ারা।

রাজ্যজুড়ে করোনাভাইরাস দাপট দেখাচ্ছে। তাই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখার নির্দেশিকা জারি করেছে রাজ্য সরকার। কিন্তু তা বলে শিক্ষা বিস্তার বন্ধ থাকতে পারে!‌ এই পরিস্থিতির কথা চিন্তা করে স্কুল পড়ুয়াদের জন্য টেলিফোনিক ক্লাস আবার ফেরাল স্কুল শিক্ষা দফতর। আজ, সোমবার থেকে ষষ্ঠ থেকে দশম শ্রেণির পড়ুয়াদের জন্য চালু হচ্ছে টেলিফোনিক শিক্ষার ব্যবস্থা। শুধু রবিবার এই পন্থা বন্ধ থাকবে। বাকি সব দিন ফোন করলেই অভিজ্ঞ শিক্ষকদের কাছ থেকে নিতে পারবে পাঠ পড়ুয়ারা।

কোন নম্বরে ফোন করে পাঠ নেওয়া যাবে?‌ স্কুল শিক্ষা দফতর সূত্রে খবর, ‘বাংলার‌ শিক্ষা দূরভাষে’ নামে একটি ব্যবস্থা করা হয়েছে। স্কুল শিক্ষা দফতরের তত্ত্বাবধানে এবং মধ্যশিক্ষা পর্ষদের পরিচালনায় গোটা প্রক্রিয়াটি হবে। এই ১৮০০১২৩২৮২৩ নম্বরে ফোন পড়ুয়ারা পাবে পাঠ। সকাল সাড়ে ১০টা থেকে দুপুর ১টা ৩০ মিনিট পর্যন্ত ফোন করতে পারবে ষষ্ঠ থেকে অষ্টম শ্রেণির পড়ুয়ারা। আর নবম–দশমের পড়ুয়ারা ফোন করতে পারবে দুপুর ১টা ৩০ মিনিট থেকে বিকেল ৪টে ৩০ মিনিট পর্যন্ত।

কেন এই উদ্যোগ নেওয়া হল?‌ শিক্ষা দফতর সূত্রে খবর, স্কুল বন্ধের অর্থ এই নয় যে পড়াশোনাও বন্ধ। বিকল্প পথ যখন আছে তখন তা ব্যবহার করাই দস্তুর। তাছাড়া পড়াশোনার প্রতি যেন পড়ুয়াদের অনীহা তৈরি না হয়। পড়ুয়াদের পঠন–পাঠন চালিয়ে নিয়ে যেতেই স্কুল শিক্ষা দফতরের পক্ষ থেকে এই উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। তাই টেলিফোনিক ক্লাস। ২০২০ সালের শেষে চালু হয়েছিল এই ব্যবস্থা।

এখন ঘরে ঘরে অসুস্থ হয়ে পড়ছেন পড়ুয়ারা। সর্দি–কাশি–জ্বর লেগেই আছে। এই পরিস্থিতিতে স্কুল পড়ুয়ারা যাতে পড়াশোনা চালিয়ে যেতে পারে তার জন্যই এমন উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। পরিস্থিতি এমন পর্যায়ে পৌঁছেছে যে আবার বন্ধ করতে হয়েছে স্কুলের দরজা। তাই স্কুল পড়ুয়াদের পড়াশোনা চালিয়ে নিয়ে যেতেই টেলিফোনিক ক্লাসকে ফিরিয়ে আনল স্কুল শিক্ষা দফতর।

বন্ধ করুন