বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > Presidency University: SFI কর্মীদের মারধরের অভিযোগ, উত্তপ্ত প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয়, কাঠগড়ায় TMCP
এসএফআই কর্মীদের এইভাবেই মারধর করা হচ্ছে।

Presidency University: SFI কর্মীদের মারধরের অভিযোগ, উত্তপ্ত প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয়, কাঠগড়ায় TMCP

  • ঘটনার সূত্রপাত এসএফআইয়ের পোস্টার পুড়িয়ে দেওয়াকে কেন্দ্র করে। অভিযোগ তৃণমূল ছাত্র পরিষদ গত বুধবার বিশ্ববিদ্যালয় চত্বরে এসএফআইয়ের একটি পোস্টার পুড়িয়ে দেয়। এরপরে তার প্রতিবাদে বিক্ষোভ শুরু করে এসএফআই। গতকাল এসএফআইয়ের কর্মী সমর্থকরা মিছিল করে রাতের দিকে বাড়ি ফিরছিলেন।

আবারও উত্তপ্ত হয়ে উঠল প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয় চত্বর। বাম ছাত্র সংগঠন এসএফআইয়ের কর্মী সমর্থকদের বেধড়ক মারধরের অভিযোগ উঠল। এই ঘটনায় অভিযোগের আঙুল তৃণমূল ছাত্র সংগঠনের দিকে। গতকাল রাতে এসএফআই কর্মী সমর্থকদের ওপর হামলা চালানো হয় বলে অভিযোগ। এই ঘটনায় বেশ কয়েকজন এসএফআই কর্মী সমর্থক আহত হয়েছেন বলে খবর।

জানা গিয়েছে, ঘটনার সূত্রপাত এসএফআইয়ের পোস্টার পুড়িয়ে দেওয়াকে কেন্দ্র করে। অভিযোগ তৃণমূল ছাত্র পরিষদ গত বুধবার বিশ্ববিদ্যালয় চত্বরে এসএফআইয়ের একটি পোস্টার পুড়িয়ে দেয়। এরপরে তার প্রতিবাদে বিক্ষোভ শুরু করে এসএফআই। গতকাল এসএফআইয়ের কর্মী সমর্থকরা মিছিল করে রাতের দিকে বাড়ি ফিরছিলেন। সেই সময় বেশ কয়েকজন দুষ্কৃতী তাদের ওপর চড়া হয় বলে অভিযোগ।

একটি ভিডিয়ো সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রকাশ হয়েছে। যাতে দেখা যায় বেশ কয়েকজন দুষ্কৃতী এসএফআই কর্মী সমর্থকদের মারধর করছে। কারও চুলের মুঠি ধরে মারছে আবার কাউকে লাথি মারছে। কাউকে মারতে মারতে আবার দোকানের মধ্যে নিয়ে যাচ্ছে। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে ব্যাপক উত্তেজনা ছড়ায়। পরিস্থিতি সামাল দিতে ঘটনাস্থলে পৌঁছায় বিশাল পুলিশ বাহিনী। এসএফআইয়ের দাবি যারা এই ঘটনার সঙ্গে জড়িত তারা বহিরাগত। তবে তারা তৃণমূল ছাত্র পরিষদের সদস্য।

এদিনের ঘটনায় বেশ কয়েকজন এসএফআই কর্মী জখম হয়েছে বলে জানা গিয়েছেম যদিও মারধরের অভিযোগ অস্বীকার করেছে টিএমসিপি। তাদের দাবি, তৃণমূল ছাত্র পরিষদ কোনওভাবেই এই ঘটনার সঙ্গে জড়িত নয়। অন্যদিকে, এই ঘটনার প্রতিবাদে আজ বিক্ষোভ করে এসএফআই। তাদের দাবি, এই ঘটনায় জড়িতদের উপযুক্ত শাস্তি দিতে হবে।

বন্ধ করুন