বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > Prasun Banerjee: ‘শুধুমাত্র আনুগত্য নয়’ প্রসূনের মন্তব্যে TMC-র বেহাল অবস্থার ইঙ্গিত পাচ্ছেন শমীক
বিজেপি মুখপাত্র শমীক ভট্টাচার্য।

Prasun Banerjee: ‘শুধুমাত্র আনুগত্য নয়’ প্রসূনের মন্তব্যে TMC-র বেহাল অবস্থার ইঙ্গিত পাচ্ছেন শমীক

  • শমীক বলেন, ‘এটা মদন মিত্রের প্রতি ভালোবাসা নয়, অথবা আনুগত্য প্রকাশ করা নয়। এটা পশ্চিমবঙ্গের ক্রীড়া জগতের স্বার্থেও কোনও বিবৃতি নয়। তার মন্তব্য প্রমাণ করছে তৃণমূল এখন শেষের পথে। এখন তৃণমূল সাংসদ, বিধায়করা ভালো করেই বুঝতে পারছেন তৃণমূলের গতি নেই।’

কামারহাটির বিধায়ক মদন মিত্রের প্রশংসা করতে গিয়ে বেলাগাম মন্তব্য করে ফেলেছিলেন তৃণমূল কংগ্রেস সাংসদ প্রসূন বন্দোপাধ্যায়। আর তাতেই তৃণমূল কংগ্রেসের অন্দরে তীব্র অস্বস্তি শুরু হয়েছে। একবারে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মন্ত্রিসভা নিয়েই প্রশ্ন তুলে দিয়েছেন প্রসূন। আর শাসক দলের সংসদের এহেন মন্তব্যকে হাতিয়ার করেই আক্রমণ করতে দেখা গেল বিজেপিকে। প্রসূনের এই মন্তব্য শুধুমাত্র মদনের প্রতি ভালোবাসার বহিঃপ্রকাশ নয় বলেই মনে করছেন বঙ্গ বিজেপির মুখপাত্র শমীক ভট্টাচার্য।

আরও পড়ুন: বাগুইআটিতে ২ কিশোরকে অপহরণ করে খুনে CBI তদন্ত দাবি BJP-র

শমীক বলেন, ‘এটা মদন মিত্রের প্রতি ভালোবাসা নয়, অথবা আনুগত্য প্রকাশ করা নয়। এটা পশ্চিমবঙ্গের ক্রীড়া জগতের স্বার্থেও কোনও বিবৃতি নয়। তার মন্তব্য প্রমাণ করছে তৃণমূল এখন শেষের পথে। এখন তৃণমূল সাংসদ, বিধায়করা ভালো করেই বুঝতে পারছেন তৃণমূলের গতি নেই। সারা বাংলার বিভিন্ন জায়গায় তৃণমূলের বিরুদ্ধে জনরোষ দেখা যাচ্ছে। অনেক জায়গায় তৃণমূল নেতাদের কাছে যাঁরা চাকরির জন্য টাকা দিয়েছেন, তাঁরা টাকা ফেরত চাইছেন। তৃণমূলের এক নেতারা অন্য নেতার বিরুদ্ধে গোয়েন্দা সংস্থার হাতে তথ্য তুলে দিচ্ছেন। তৃণমূলের জাহাজে ডুবে যাচ্ছে। তা ভালোমতোই বুঝতে পারছেন দলের বিধায়ক, সাংসদরা।

প্রসঙ্গত, রাজনীতিতে আসার আগে ক্রীড়া জগতের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন প্রসুন বন্দ্যোপাধ্যায়। ফলে খেলার প্রতি বরাবরই তাঁর একটা আলাদা টান রয়েছে। মদন মিত্রকে সমর্থন করতে গিয়ে প্রসূন বন্দোপাধ্যায় বলেছিলেন, ‘ তৃণমূলের জমানায় সেরা ক্রীড়ামন্ত্রী হলেন মদন মিত্র। আর কাউকে ক্রীড়ামন্ত্রী হিসেবে আমি মানি না। আমি অবাক হয়ে যাচ্ছি যে মদন মিত্র মন্ত্রিসভায় নেই। কেউ রাগ করলে আমার কিছু এসে যায় না।’ প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায়ের এই মন্তব্যের তৃণমূল যেমন অস্বস্তিতে পড়েছে, তেমনই সেই সুযোগ হাতছাড়া করতে চাইছে না বিজেপি।

বন্ধ করুন