বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > ‘মানসিক রোগী হয়ে যাচ্ছে এক একটা ছোটছোট ছেলে মেয়ে, আর কবে স্কুল খুলবেন?’
বিজেপি নেতা শমীক ভট্টাচার্য। ফাইল ছবি

‘মানসিক রোগী হয়ে যাচ্ছে এক একটা ছোটছোট ছেলে মেয়ে, আর কবে স্কুল খুলবেন?’

  • শমীকবাবুর আশঙ্কা, ‘পরিস্থিতি যা দাঁড়িয়েছে, তাতে এর পর পশ্চিমবঙ্গে মনোবিদ ও চোখের ডাক্তারের সাক্ষাতের সময় পাওয়া যাবে না।

লাগাতার স্কুল বন্ধ থাকায় মানসিক রোগীতে পরিণত হচ্ছে রাজ্যের ছাত্রছাত্রীরা। এমনই দাবি করলেন বিজেপির মুখপাত্র শমীক ভট্টাচার্য। শুক্রবার সন্ধ্যায় দলের রাজ্য সদর দফতরে এক সাংবাদিক বৈঠকে একথা বলেন তিনি। সঙ্গে জানান, যারা পড়াশুনো করবে তাদের দাবি মেনে অবিলম্বে স্কুল খোলা উচিত।

এদিন শমীকবাবু বলেন, ‘আমরা স্কুল-কলেজ খোলার পক্ষে। পশ্চিমবঙ্গে তো সমস্ত জিনিসই খোলা। কোনও জিনিস বন্ধ নেই, কোথাও বন্ধ নেই। পানশালা, স্পা, সেলুন, ক্লাব, মল, সিনেমাহল খোলা। তাহলে স্কুল-কলেজ কী করে বন্ধ হবে?’

শমীকবাবুর দাবি, ‘স্কুলপড়ুয়াদেরও তো কোভিড হয়েছে। ওমিক্রনের সংক্রমণ হয়েছে তাদের। বাড়িতে বসে সংক্রমণ হয়েছে।’

শমীকবাবুর আশঙ্কা, ‘পরিস্থিতি যা দাঁড়িয়েছে, তাতে এর পর পশ্চিমবঙ্গে মনোবিদ ও চোখের ডাক্তারের সাক্ষাতের সময় পাওয়া যাবে না। যে পরিমাণ ভিড় হবে। মানসিক রোগী হয়ে যাচ্ছে এক একটা ছোটছোট ছেলে মেয়ে। আর কবে স্কুল খুলবেন?’

তিনি বলেন, ‘অন্য রাজ্যের সঙ্গে বারবার করোনা টেনে এনে কোনও লাভ নেই। এই মুহূর্তে প্রত্যেক অভিভাবক চান স্কুল কলেজ খোলা হোক। এই মুহূর্তে প্রত্যেক পড়ুয়া চায় স্কুল – কলেজ খোলা হোক। যারা পড়াশুনো করবে তাদের দাবিকেই তো মান্যতা দিতে হবে। সরকার স্কুল কলেজ খুলছে না আর বলছে দুয়ারে পাঠশালা?’

করোনা সংক্রমণের জেরে প্রায় ২ বছর ধরে রাজ্যে বন্ধ স্কুল কলেজ। মাঝে কয়েক মাসের জন্য নবম থেকে দ্বাদশ শ্রেণির ক্লাস শুরু হলেও সংক্রমণের গতি বাড়ায় ফের তা বন্ধ হয়ে যায়।

 

বন্ধ করুন