বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > কলকাতায় মিছিলে যাওয়ার পথে বিজয়বর্গীয়, মুকুল রায়ের গাড়ি লক্ষ্য করে উড়ে এল জুতো!
মুকুল রায় ও কৈলাস বিজয়বর্গীয়। ফাইল ছবি
মুকুল রায় ও কৈলাস বিজয়বর্গীয়। ফাইল ছবি

কলকাতায় মিছিলে যাওয়ার পথে বিজয়বর্গীয়, মুকুল রায়ের গাড়ি লক্ষ্য করে উড়ে এল জুতো!

  • যদিও এ নিয়ে এখনও প্রকাশ্যে কোনও অভিযোগ করেননি বিজেপি–র সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক ও পশ্চিমবঙ্গের পর্যবেক্ষক কৈলাস বিজয়বর্গীয় ও বিজেপি–র সর্বভারতীয় সহ সভাপতি মুকুল রায়।

সোমবার শহর কলকাতায় বিশাল রোড শো ছিল বিজেপি–র। যদিও শোভন–বৈশাখীর অনুপস্থিতিতে ও পুলিশের বিনা অনুমতিতে তা কলেবরে কমে সারা হয় নমো নমো করেই। কিন্তু মিছিলকে ঘিরে ঘটা এক কাণ্ড জে পি নড্ডার কনভয়ে হামলার স্মৃতি উস্কে দিয়েছে। ‘‌ইন্ডিয়া টুডে’‌–র প্রতিবেদন অনুযায়ী, এদিন ওই রোড শো–তে অংশ নিতে যাওয়ার সময় কলকাতার বুকেই কৈলাস বিজয়বর্গীয় ও মুকুল রায়ের গাড়ি লক্ষ্য করে ছোড়া হয় জুতো।

যদিও এ নিয়ে এখনও প্রকাশ্যে কোনও অভিযোগ করেননি বিজেপি–র সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক ও পশ্চিমবঙ্গের পর্যবেক্ষক কৈলাস বিজয়বর্গীয় ও বিজেপি–র সর্বভারতীয় সহ সভাপতি মুকুল রায়। উল্লেখ্য, ১০ ডিসেম্বর ডায়মন্ড হারবারের কর্মিসভায় যাওয়ার পথে শিরাকোলে বিজেপি–র সর্বভারতীয় সভাপতি জে পি নড্ডার কনভয়ের ওপর চলে হামলা। গাড়ি লক্ষ্য করে ছোড়া হয় ইট–পাথর। সেই কনভয়ে কৈলাস বিজয়বর্গীয় ও রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ–সহ ছিলেন একাধিক নেতা। সেই ঘটনায় অভিযোগের আঙুল ওঠে তৃণমূল সমর্থকদের বিরুদ্ধে। ঘটনায় জখম হয়েছিলেন কৈলাস বিজয়বর্গীয় ও মুকুল রায়। সোমবার ফের এই দু’‌জনের গাড়ির ওপর হামলা চলায় ফিরে এল সেদিনের স্মৃতি।

তৃণমূলের মদতেই নড্ডার কনভয়ে হামলা চালানো হয়েছিল বলে অভিযোগ করে বিজেপি। যদিও তৃণমূল সুপ্রিমো তথা পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এই ঘটনাকে ‘‌সাজানো’‌ ও ‘‌নাটক’‌ বলে কটাক্ষ করেন। ওই ঘটনার জল গড়িয়েছিল দিল্লি পর্যন্ত। দলের সর্বভারতীয় সভাপতির কনভয়ে হামলার ঘটনার নিন্দা করেছিলেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। রাজ্য সরকারের ওপর আঙুল তুলেছিলেন পশ্চিমবঙ্গের রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়ও।

এদিকে, এদিন কলকাতায় বিজেপি–র রোড শো–তে শোভন চট্টোপাধ্যায় ও বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায় ‘‌মূল আকর্ষণ’‌ হওয়া সত্ত্বেও তাঁদের দেখা মেলেনি। চরম বিড়ম্বনায় পড়ে শোভন এবং বৈশাখীকে ছাড়াই দুপুর তিনটের পর অরফ্যানগঞ্জ থেকে মিছিল শুরু করা হয়। ছিলেন অর্জুন সিং, কৈলাস বিজয়বর্গীয়, মুকুল রায়রা। আড়ম্বর থাকা সত্ত্বেও কোনওমতে নমো নমো করে শেষ হয় এদিনের মিছিল।

বন্ধ করুন