বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > রাতের অন্ধকারে তৃণমূল নেতার ফ্ল্যাট লক্ষ্য করে গুলি, খাস কলকাতায় তীব্র আতঙ্ক
এই তৃণমূল কংগ্রেস নেতার নাম রূপক গঙ্গোপাধ্যায়।
এই তৃণমূল কংগ্রেস নেতার নাম রূপক গঙ্গোপাধ্যায়।

রাতের অন্ধকারে তৃণমূল নেতার ফ্ল্যাট লক্ষ্য করে গুলি, খাস কলকাতায় তীব্র আতঙ্ক

  • ইতিমধ্যেই ঘটনাকে কেন্দ্র করে সেখানে পৌঁছেছে বিশাল পুলিশ বাহিনী।

আবার রাতের শহরে গুলির শব্দ শোনা গেল। খাস কলকাতায় বেহালার ১২১ নম্বর ওয়ার্ডে চলল পর পর গুলি। তৃণমূল কংগ্রেস নেতার বাড়ির জানালা লক্ষ্য করে চার রাউন্ড গুলি চালানোর অভিযোগ উঠল। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে তীব্র উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়েছে। ইতিমধ্যেই ঘটনাকে কেন্দ্র করে সেখানে পৌঁছেছে বিশাল পুলিশ বাহিনী। কেন নিশানা করা হল এই তৃণমূল কংগ্রেস নেতাকে?‌

পুলিশ সূত্রে খবর, এই তৃণমূল কংগ্রেস নেতার নাম রূপক গঙ্গোপাধ্যায়। তিনি বেহালার ১২১ নম্বর ওয়ার্ড জেমস লং সরণির বাসিন্দা। তাঁর দুই সন্তান ও স্ত্রীর সঙ্গে বেহালার ফ্ল্যাটেই থাকতেন রূপকবাবু। রবিবার রাতে খাওয়া সেরে ঘুমিয়ে পড়ে গোটা পরিবার। ঘুম ভাঙে রাত সাড়ে ১২টা নাগাদ। কারণ গুলির শব্দে তখন কান ফাটছে। এই ঘটনায় এলাকায় তীব্র চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে।

কারা গুলি চালালো?‌ কেন গুলি চলল?‌ এই বিষযে রূপক গঙ্গোপাধ্যায় জানান, তাঁর ফ্ল্যাটের জানালা লক্ষ্য করে চার রাউন্ড গুলি চলেছে। তাতে দেওয়ালে গুলি লেগেছে। ভেঙেছে জানালার কাঁচও। তিনি দেখেছেন দুটি মোটরবাইকে মোট চারজন দুষ্কৃতী এই হামলা চালিয়েছে। গুলির শব্দে স্থানীয়রা বেরিয়ে আসতেই মোটরবাইকে করে চম্পট দেয় দুষ্কৃতীরা। তখনই খবর যায় বেহালা থানায়। পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে উদ্ধার করে গুলির খোল। ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে।

কিন্তু কেন এই হামলা করা হল? স্থানীয় সূত্রে খবর, দু’‌মাস আগে ভরদুপুরে গুলি চলেছিল বেহালার ১২১ নম্বর ওয়ার্ডে। সিন্ডিকেট, গুণ্ডারাজ চালানোর অভিযোগ উঠেছিল বেশ কয়েকজনের বিরুদ্ধে। তখন গোটা ঘটনা মোকাবিলার দায়িত্ব রূপক গঙ্গোপাধ্যায়কে দেয় তৃণমূল কংগ্রেস। রূপকবাবুর দাবি, পরিস্থিতি অনেকটাই নিয়্ন্ত্রণে এসেছে। তাই আঁতে ঘা পড়তেই দুষ্কৃতীদের হামলা শুরু হয়েছে।

বন্ধ করুন