বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > বাড়িতে ঢুকে প্রথমে ডাক, তারপরই চলল গুলি, খাস কলকাতায় শিহরণ, গুলিবিদ্ধ ১
রাতে বাঁশদ্রোণীর সোনালী পার্কে এই শুটআউটের ঘটনাটি ঘটেছে প্রতীকী ছবি (‌সৌজন্য গেটি ইমেজেস)‌ (HT_PRINT)
রাতে বাঁশদ্রোণীর সোনালী পার্কে এই শুটআউটের ঘটনাটি ঘটেছে প্রতীকী ছবি (‌সৌজন্য গেটি ইমেজেস)‌ (HT_PRINT)

বাড়িতে ঢুকে প্রথমে ডাক, তারপরই চলল গুলি, খাস কলকাতায় শিহরণ, গুলিবিদ্ধ ১

  • পকেট থেকে পিস্তল বের করে ওই বাড়ির গেটের ফাঁক দিয়ে হাত ঢুকিয়ে গুলি চালিয়ে দিলেন এক যুবক।

রাতের কলকাতায় ঘটল শুটআউটের ঘটনা। দক্ষিণ কলকাতার বাঁশদ্রোণীতে গুলির শব্দে কেঁপে উঠল। এই গুলি প্রমোটিং সিন্ডিকেটকে কেন্দ্র করেই চলেছে বলে অভিযোগ। তার জেরে গুলিবিদ্ধ হয়েছেন এক যুবক। তাঁর নাম অভিজিৎ মুখোপাধ্যায়। গোটা ঘটনায় এলাকায় উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়েছে। প্রকাশ্যে এসেছে ঘটনার সিসিটিভি ফুটেজ। প্রথমে বাড়িতে ঢুকে চার–পাঁচজন যুবক চিৎকার করে একজনের নাম ধরে ডাকে। তারপরই পকেট থেকে পিস্তল বের করে ওই বাড়ির গেটের ফাঁক দিয়ে হাত ঢুকিয়ে গুলি চালিয়ে দিলেন এক যুবক।

বৃহস্পতিবার রাত পৌনে ১১টা নাগাদ বাঁশদ্রোণীর সোনালী পার্কে এই শুটআউটের ঘটনাটি ঘটেছে বলে খবর। এই গুলির শব্দে অনেকেই তখন ঘুম ভেঙে যায়। কার্যত বাড়িতে ঢুকেই এক যুবককে গুলি করে গেলেন এলাকারই যুবকরা। খাস কলকাতার বুকে ঘটে গেল এই শিউরে ওঠার ঘটনা। আততায়ীদের নিশানায় ছিলেন প্রদীপ দেবনাথ। কিন্তু লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়ে গুলি লাগে তাঁর আত্মীয় অভিজিৎ মুখোপাধ্যায়ের হাতে। এখন তিনি এসএসকেএম হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

এই ঘটনায় স্থানীয় দুষ্কৃতী নান্টি ঘোষের বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছে। ইতিমধ্যে তদন্তে নেমেছে পুলিশ। তাঁদের তালিকায় সন্দেহভাজন হিসেবে ২৬ জনের নাম উঠে এসেছে। যাদের মধ্যে আজ ১৫ জনকে আটক করেছে পুলিশ। চলছে দফায় দফায় জিজ্ঞাসাবাদ। এই শুটআউটের সঙ্গে কারা যুক্ত?‌ কেন গুলি চলল?‌ জানার চেষ্টা করছেন তদন্তকারীরা।

এই ঘটনা নিয়ে প্রদীপ দেবনাথের দাবি, নান্টি ঘোষ নামে স্থানীয় এক দুষ্কৃতীর বড় ছেলে শুভ ঘোষ দলবল নিয়ে গুলি চালিয়েছে। দুষ্কৃতীদের কথা না শোনায় বৃহস্পতিবার রাতে তাঁকে লক্ষ্য করে গুলি চালানো হয়। কিন্তু তা লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়। সেখানে আত্মীয় অভিজিৎ মুখোপাধ্যায় বেরিয়ে আসায় তাঁর গুলি লেগেছে।

বন্ধ করুন