বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > ভোট পরবর্তী হিংসায় আদালতে রিপোর্ট পেশ SITএর, ঘরছাড়াদের তালিকা মানতে নারাজ রাজ্য
কলকাতা হাইকোর্ট। (ফাইল ছবি, সৌজন্য কলকাতা হাইকোর্ট)
কলকাতা হাইকোর্ট। (ফাইল ছবি, সৌজন্য কলকাতা হাইকোর্ট)

ভোট পরবর্তী হিংসায় আদালতে রিপোর্ট পেশ SITএর, ঘরছাড়াদের তালিকা মানতে নারাজ রাজ্য

  • এজির বক্তব্যকে চ্যালেঞ্জ করে এদের প্রত্যেককে আদালতে হাজির করার দাবি জানান প্রিয়াঙ্কাদেবী। কিন্তু আদালত জানায়, করোনা পরিস্থিতিতে তা সম্ভব নয়।

ভোট পরবর্তী হিংসা মামলায় ঘরছাড়াদের নিয়ে রিপোর্ট ভিত্তিহীন বলে আদালতকে জানাল রাজ্য সরকার। মঙ্গলবার মামলার শুনানিতে রাজ্যের অ্যাডভোকেট জেনারেল সৌমেন্দ্রনাথ মুখোপাধ্যায় জানান, এখনো বহু মানুষ ঘরছাড়া বলে যে দাবি করা হচ্ছে তা ভিত্তিহীন। এর পর ঘরছাড়াদের হলফনামা দিতে বলে প্রধান বিচারপতি প্রকাশ শ্রীবাস্তবের ডিভিশন বেঞ্চ। ওদিকে এদিনই ভোট পরবর্তী হিংসার তদন্তরিপোর্ট আদালতে পেশ করেছে রাজ্য সরকার গঠিত বিশেষ তদন্তকারী দল।

মামলাকারী প্রিয়াঙ্কা টিব্রেওয়ালের অভিযোগ, ভোট পরবর্তী হিংসার জেরে এখনো ঘরছাড়া শতাধিক মানুষ। ভয়ে তারা বাড়ি ফিরতে পারছেন না। প্রিয়াঙ্কাদেবীর অভিযোগ খণ্ডন করে অ্যাডভোকেট জেনারেল বলেন, এই অভিযোগ ভিত্তিহীন। রিপোর্ট অনুসারে ২৪৩ জন ঘরছাড়া ছিলেন। তাদের মধ্যে ১১৭ জন বাড়ি ফিরে গিয়েছেন। ২২ জনের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারেনি প্রশাসন। ৮৬ জন স্বেচ্ছায় বাড়ির বাইরে রয়েছেন। ৯ জন ২ বার করে অভিযোগ করেছেন। আর ১ জনের মৃত্যু হয়েছে।

এজির বক্তব্যকে চ্যালেঞ্জ করে এদের প্রত্যেককে আদালতে হাজির করার দাবি জানান প্রিয়াঙ্কাদেবী। কিন্তু আদালত জানায়, করোনা পরিস্থিতিতে তা সম্ভব নয়। তাই প্রত্যেককে হলফনামা জমা দিতে নির্দেশ দিয়েছে প্রধান বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চ।

এদিন আদালতে তদন্ত রিপোর্ট পেশ করে সিট। তারা জানায় মোট ৩২৩টি অভিযোগ জমা পড়েছিল। একই ঘটনায় একাধিক অভিযোগ জমা পড়ায় শেষে মামলার সংখ্যা দাঁড়ায় ২৯০। ২৩টি মামলা সিবিআইকে হস্তান্তর করা হয়েছে। ১৩০টি কেস ক্লোজ করা হয়েছে। ১০৪টি কেসে FIR হয়েছে। ৬২টি মামলায় চার্জশিট হয়েছে। ২টি মামলা সিবিআই ফেরত পাঠিয়েছে। সেগুলির তদন্ত চলছে।

সিবিআই জানিয়েছে, তাদের হাতে ৫১টি মামলা ছিল। তার মধ্যে ২০টিতে চার্জশিট দেয়া হয়েছে ২৮টি মামলার তদন্ত চলছে। মোট ১৯৩ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

 

বন্ধ করুন