বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > Sleep Champion: ঘুমিয়েই ৬ লাখ পুরস্কার জিতলেন বাংলার ত্রিপর্ণা…ঘুম ঘুম…
ত্রিপর্ণা চক্রবর্তী। স্লিপ চাম্পিয়ন। (ফেসবুক)

Sleep Champion: ঘুমিয়েই ৬ লাখ পুরস্কার জিতলেন বাংলার ত্রিপর্ণা…ঘুম ঘুম…

  • বরাবরের ঘুমকাতুরে ত্রিপর্ণা। ছোটবেলায় মা থেকে মিস সকলেই বলতেন, এত ঘুমোও কেন ত্রিপর্ণা? অঙ্ক পরীক্ষা দিতে গিয়েও ঘুম পেত ত্রিপর্ণার। খালি ঘুম ঘুম। আসলে ঘুমোতে ভালোবাসেন ত্রিপর্ণা। তবে ইদানিং বহুজাতিক সংস্থার কর্মী হিসাবে রাতের সিফটে কাজ করতে হয় তাঁকে। ফলে দিনের বেলা ঘুম।

ঘুমোতে কে না ভালোবাসে। কিন্তু তা বলে এত ঘুম? আর বেশি ঘুমোলে বকাঝকাও জুটে যায় বাড়িতে। কিন্তু শ্রীরামপুরের তরুণীর ক্ষেত্রে আবার অন্যরকম। শান্তির ঘুম ঘুমিয়ে পুরস্কার জিতেছেন তিনি। একেবারে হাতেগরম ৬ লাখ টাকা পুরস্কার জিতেছেন তিনি। সেরা ঘুমকাতুরের পুরস্কার এখন তাঁর হাতে।

নাম ত্রিপর্ণা চক্রবর্তী। একটি বহুজাতিক সংস্থায় কর্মরত তিনি। মন দিয়ে কাজ করেন তিনি। আর যে কাজটি করেন, সেটা মন দিয়ে ঘুম। একেবারে অকাতরে ঘুম। নেট মাধ্যমে তিনি জানতে পেরেছিলেন একটি নামকরা ম্যাট্রেস সংস্থা সেরা ঘুমকাতুরে মানুষটিকে খুঁজছেন। তার হাতেই তারা তুলে দিতে চেয়েছিলেন সেরা ঘুম কাতুরের পুরস্কার। সেই প্রতিযোগিতায় নাম লিখিয়ে ফেলেন ত্রিপর্ণা। 

এদিকে সেই প্রতিযোগিতায় গোটা দেশ থেকে অন্তত সাড়ে ৫ লক্ষ প্রতিযোগী অংশ নিয়েছিলেন। সেক্ষেত্রে প্রতিযোগিতাটা মোটেই সহজ ছিল না। ঘুমোনই এই প্রতিযোগিতার মূল ইভেন্ট। অর্থাৎ কে কতক্ষণ ঘুমোতে পারেন তার উপরই নির্ভর করছে এই প্রতিযোগিতা শিরোপা জেতার সুযোগ। তবে সবাইকে টপকে প্রথম চারজন সফলের মধ্যে জায়গা করে নিয়েছেন বাংলার ত্রিপর্ণা।

বরাবরের ঘুমকাতুরে ত্রিপর্ণা। ছোটবেলায় মা থেকে মিস সকলেই বলতেন, এত ঘুমোও কেন ত্রিপর্ণা? অঙ্ক পরীক্ষা দিতে গিয়েও ঘুম পেত ত্রিপর্ণার। খালি ঘুম ঘুম। আসলে ঘুমোতে ভালোবাসেন ত্রিপর্ণা। তবে ইদানিং বহুজাতিক সংস্থার কর্মী হিসাবে রাতের সিফটে কাজ করতে হয় তাঁকে। ফলে দিনের বেলা ঘুম।

আর স্লিপ চাম্পিয়নের অন্যান্য প্রতিযোগীরা যখন রাতে ঘুমোতেন, ঘুম ঘুম চাঁদ… ত্রিপর্ণাকে ঘুমোতে হত দিনের বেলা। ঘরে লোকজন ঢুকে পড়ছেন, তার মধ্যেই ঘুম। পরীক্ষা বলে কথা। ৯ ঘণ্টা করে ১০০দিন ঘুমোন। আর তাতেই সকলকে টপকে পুরস্কারের অধিকারী হয়েছেন ত্রিপর্ণা। 

বন্ধ করুন