বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > নবান্নে মমতার সঙ্গে দেখা করলেন আদানি পুত্র, তাজপুরে বিনিয়োগ নিয়ে কথা?
নবান্নে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে দেখা করলেন গৌতম আদানির পুত্র। (সংগৃহীত)

নবান্নে মমতার সঙ্গে দেখা করলেন আদানি পুত্র, তাজপুরে বিনিয়োগ নিয়ে কথা?

  • এর আগে ডিসেম্বরে মমতা বন্দ্য়োপাধ্যায়ের সঙ্গে আলোচনায় বসেছিলেন গৌতম আদানি।

গত বছরের ২রা ডিসেম্বর মাসেই বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্য়োপাধ্যায়ের সঙ্গে দেখা করতে এসেছিলেন বিশিষ্ট শিল্পপতি গৌতম আদানি। বাংলায় বিনিয়োগ সম্ভাবনা নিয়ে টুইটও করেছিলেন তিনি। এবার নবান্নে মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করলেন গৌতম আদানির পুত্র করন আদানি। তিনি আদানি পোর্টের সিইও। সূত্রের খবর, সম্ভবত তাজপুরে বন্দর তৈরি নিয়ে বিনিয়োগে উৎসাহী আদানি গ্রুপ। সেই নিরিখেই তিনি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে দেখা করেন। গভীর সমুদ্রবন্দর তৈরিতে এবার আদানি গ্রুপের বিনিয়োগের সম্ভাবনা ক্রমেই উজ্জ্বল হচ্ছে। এদিন রাজ্যের মুখ্যসচিব হরেকৃষ্ণ দ্বিবেদীও এই আলোচনায় উপস্থিত ছিলেন। 

তবে শেষ পর্যন্ত কোন সংস্থা এই বন্দর তৈরির দায়িত্ব পাবে তা নিয়ে অবশ্য নবান্নের তরফে কোনও সিদ্ধান্ত জানানো হয়নি। তবে সূত্রের খবর, প্রায় ১ হাজার একর জমির উপর এই সমুদ্র বন্দর তৈরি হবে। ত্রিপুরা, অসম, মিজোরাম সহ উত্তরপূর্বের একাধিক রাজ্যের সঙ্গে ব্যবসায়িক লেনদেন এই বন্দরের মাধ্যমেই হবে। হলদিয়া বন্দরের নাব্যতা কমে যাওয়ার জন্য তাজপুর নিয়ে বিশেষ চিন্তাভাবনা শুরু করেছে রাজ্য সরকার।

 ইতিমধ্যে বিদেশি সংস্থা সহ মোট ১০টি সংস্থা আগ্রহ দেখিয়েছিল। তার মধ্যে চারটি সংস্থার ব্যাপারে আগ্রহ প্রকাশ করেছে রাজ্য সরকার। এরপর সামগ্রিক পরিস্থিতি সরেজমিনে খতিয়ে দেখেন ওই চারটি সংস্থার কর্তারা। এদিকে এর আগে ডিসেম্বরে মমতা বন্দ্য়োপাধ্যায়ের সঙ্গে আলোচনায় বসেছিলেন  গৌতম আদানি। এবার তাঁর পুত্রও দেখা করলেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে। এপ্রিলের বিশ্ব বঙ্গ বাণিজ্য সম্মেলনের আগে এই আলোচনা যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করছেন অনেকেই।

 

বন্ধ করুন