বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > আবারও করোনার থাবা সৌরভের পরিবারে, রিপোর্ট পজিটিভ এল কন্যা সানার

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হলেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের কন্যা সানা। বুধবার সকালের দিকে তাঁর রিপোর্ট পজিটিভি আসে। আপাতত বাড়িতেই আইসোলেশনে আছেন সানা।

গত বছরের শেষ লগ্নে করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন সৌরভ। করোনাকে হারিয়ে বছরের শেষদিনে বাড়ি ফেরেন সৌরভ। আপাতত তাঁকে ১৪ দিন বাড়িতেই আইসোলেশনে কাটানোর নির্দেশ দিয়েছেন চিকিৎসকরা। 'দাদা' যখন করোনায় আক্রান্ত হয়েছিল, তখন প্রাথমিকভাবে সৌরভের স্ত্রী ডোনা এবং কন্যার রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছিল। কিন্তু সৌরভ হাসপাতাল থেকে ছাড়া পাওয়ার পর বেহালার বীরেন রায় রোডের বাড়ির আরও তিন সদস্যের (সৌরভের ছোটো কাকা তথা সিএবি কোষাধ্যক্ষ দেবাশিষ, খুড়তুতো ভাই শুভ্রদীপ এবং ভ্রাতৃবধূ জুঁই) করোনা রিপোর্ট পজিটিভি আসে। এবার করোনার কবলে পড়লেন সানা। সূত্রের খবর, চারজনেরই মৃদু উপসর্গ আছে। তাঁরা বাড়িতেই নিভৃতবাসে আছেন। তবে ডোনার রিপোর্টের বিষয়ে এখনও কিছু জানা যায়নি।

উল্লেখ্য, করোনা থেকে সেরে উঠে গত শুক্রবার হাসপাতাল থেকে ছাড়া পান প্রাক্তন ভারতীয় অধিনায়ক তথা ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিসিআই) সভাপতি। হাসপাতালের তরফে জানানো হয়েছিল, সৌরভের শারীরিক অবস্থার উন্নতি হয়। বৃহস্পতিবার রাতে ঠিকমতো খাওয়া-দাওয়া করেন। ভালো ঘুম হয়। শারীরিক বিভিন্ন মাপকাঠিও স্বাভাবিক আছে। সেই পরিস্থিতিত শুক্রবার সকালে সৌরভের একপ্রস্থ রিপোর্ট আসার পরই ‘দাদাকে’ হাসপাতাল থেকে ছেড়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। সেইমতো দক্ষিণ কলকাতার বেসরকারি হাসপাতালের সামনে দাঁড়িয়েছিল সৌরভের লাল গাড়ি। দুপুর দুটো নাগাদ ছাড়া পেয়ে গাড়িতে উঠে গিয়েছিলেন। স্বভাবতই নীল চেক শার্ট এবং নীল জ্যাকেট পরিহিত সৌরভকে কিছুটা দেখে মনে হচ্ছিল যে বড় ধকল বয়ে গিয়েছে। তারইমধ্যে হাত নেড়েছিলেন বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট। ‘থাম্বস আপও’ দেখিয়েছিলেন। তবে করোনাভাইরাস থেকে সেরে উঠলেও চিকিৎসকদের পরামর্শে আপাতত ১৪ দিন বেহালার বাড়িতে সৌরভকে নিভৃতবাসে থাকতে হবে। মেনে চলতে হবে করোনা সংক্রান্ত যাবতীয় বিধিনিষেধ। খেতে হবে ওষুধ। হাসপাতাল সূত্রে খবর, ভিটামিন সি জাতীয় ট্যাবলেট নিয়মিত তাঁকে নিতে হবে। ফুসফুস যাতে স্বাভাবিক থাকে, সেজন্য উষ্ণ ভাপ নেওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

বন্ধ করুন