বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > Sourav Ganguly: ‘দিদি কাছের মানুষ’, শাহকে আপ্যায়নের পরদিন ফিরহাদের পাশে বসে মমতা বন্দনা সৌরভের
বিসিসিআই সভাপতি সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় এবং কলকাতার মেয়র ফিরহাদ হাকিমকে একই মঞ্চে দেখা যায় এদিন।
বিসিসিআই সভাপতি সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় এবং কলকাতার মেয়র ফিরহাদ হাকিমকে একই মঞ্চে দেখা যায় এদিন।

Sourav Ganguly: ‘দিদি কাছের মানুষ’, শাহকে আপ্যায়নের পরদিন ফিরহাদের পাশে বসে মমতা বন্দনা সৌরভের

  • Sourav Ganguly: বিসিসিআই সভাপতি সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় এবং কলকাতার মেয়র ফিরহাদ হাকিমকে একই মঞ্চে দেখা যায় এদিন। বাইপাসের ধারে একটি বেসরকারি হাসপাতালের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন দু'জনে। সঙ্গে ছিলেন সৌরভের স্ত্রী ডোনা গঙ্গোপাধ্যায়ও। 

গতকালই বেহালায় তাঁর বাড়িতে গিয়ে নৈশভোজ করে আসেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ, বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীরা। আজকে সেই সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়কেই এক অনুষ্ঠানে দেখা গেল রাজ্যের হেভিওয়েট মন্ত্রী তথা কলকাতার মেয়র ফিরহাদ হাকিমের পাশে। সৌরভের সঙ্গে অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন তাঁর স্ত্রী ডোনা গঙ্গোপাধ্যায়ও। অনুষ্ঠানে সৌরভ বলেন, ‘দিদি আমাদের সবার কাছের মানুষ।’

আরও পড়ুন: সৌরভের বাড়ির ঠাকুরঘরেও যান অমিত শাহ, কী নিয়ে আলোচনা হল দু’জনের?

আজ বাইপাসের ধারে একটি বেসরকারি হাসপাতালের উদ্বোধনের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। অনুষ্ঠানে ছিলেন ফিরহাদও। এদিন সৌরভের মুখে ফিরহাদের প্রশংসাও শোনা যায়। বিসিআই সভাপতি বলেন, ‘মন্ত্রী ফিরহাদের কাছে কোনও মানুষ সাহায্যের জন্য গিয়ে নিরাশ হন না।’ পাশাপাশি সৌরভ বলেন, ‘মাননীয় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আমার কাছের মানুষ।’ আজকে ফিরহাদের সঙ্গে একই মঞ্চে দাঁড়িয়ে সৌরভ কার্যত বুঝিয়ে দেন, তাঁর গায়ে কোনও নির্দিষ্ট রাজনৈতিক দলের রঙ লাগানো যাবে না। কেন্দ্রে যেমন মোদী সরকারের সঙ্গে তাঁর সুসম্পর্ক রয়েছে, তেমনই রাজ্যের মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকারের সঙ্গে তাঁর ঘনিষ্ঠতা রয়েছে।

এদিকে অমিত শাহ সৌরভের বাড়ি যাওয়ায় প্রাক্তন ভারত অধিনায়ককে এদিন সকালেই আক্রমণ শানিয়েছিলেন তৃণমূল বিধায়ক মনোরঞ্জন ব্যাপারী। তিনি সৌরভকে ‘আলালের ঘরে দুলাল’ বলে কটাক্ষ করেন। পাশাপাশি তিনি লেখেন, ‘আজকে যখন সে এক চরম বাঙালি বিদ্বেষী, বাংলা ভাষা-সাহিত্য-সংস্কৃতি বিরোধী, বাংলা ভাগের চক্রান্তকারী ব্যােক্তিকে আদর, আপ্যাধয়ন করে বাড়িতে নিয়ে গিয়ে ভূরিভোজ করায়— সৌরভকে নয়, যারা তাকে বাঙালির আইকন বলে ধেই ধেই নাচে, তাদের দেখে করুণা হয়।’ কিন্তু এই রাজনৈতিক বিতর্কে যে জড়াতে কোনও ভাবেই রাজি নন, তা স্পষ্ট সৌরভের কাজে।

বন্ধ করুন