বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > বাবাকে মানসিক হাসপাতালে পাঠানো হোক, দাবি তুললেন শোভনপুত্র সপ্তর্ষি
ফাইল ছবি।
ফাইল ছবি।

বাবাকে মানসিক হাসপাতালে পাঠানো হোক, দাবি তুললেন শোভনপুত্র সপ্তর্ষি

  • সপ্তর্ষি বলেন, ‘শোভনবাবুর ফেলে যাওয়া কাজ নিয়ে মা সারা দিন ছুটছেন। আমার নিজের কাজ রয়েছে। সেই সব সামলে ওরা কোথায় কী বললেন তা নিয়ে ভাবার সময় আমাদের নেই।

বাবা শোভন চট্টোপাধ্যায়কে মানসিক পুনর্বাসন কেন্দ্রে পাঠানোর দাবি তুললেন ছেলে সপ্তর্ষি। রবিবার সংবাদমাধ্যমের সামনে এমনই দাবি তোলেন তিনি। সঙ্গে মায় রত্না চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে সুর মিলিয়ে, ক্ষমতা থাকলে বৈশাখি বাড়ি থেকে উৎখাত করে দেখান বলে হুঙ্কার ছেড়েছেন তিনি।

শনিবার জানা যায় বেহালার পর্ণশ্রীর বাড়িটি বান্ধবী বৈশাখি বন্দ্যোপাধ্যায়কে বিক্রি করে দিয়েছেন শোভন চট্টোপাধ্যায়। এর পরই শোরগোল শুরু হয় । তবে কি রত্না চট্টোপাধ্যায় ও তাঁর ২ সন্তানকে ওই বাড়ি থেকে উৎখাত করবেন বৈশাখি? এই নিয়ে আইনি লড়াইয়ের হুঁশিয়ারি দেন রত্না।

এরই মধ্যে রবিবার শোভন চট্টোপাধ্যায়ের ছেলে সপ্তর্ষি বলেন, ‘আমাকে আর মাকে বাড়ি ছেড়ে যেতে হবে বলে হুঁশিয়ারি দেওয়া হচ্ছে। বোনকে এখানে থাকতে হলে আমাদের সঙ্গে যোগাযোগ রাখা যাবে না বলে শর্ত দেওয়া হয়েছে। একজন নাবালিকাকে তার মা ও দাদার থেকে দূরে রাখার কথা ভাবলেন কী করে ওরা। আমার মনে হয় শোভন চট্টোপাধ্যায়কে অ্যাসাইলামে পাঠানো উচিত।’

সপ্তর্ষি বলেন, ‘শোভনবাবুর ফেলে যাওয়া কাজ নিয়ে মা সারা দিন ছুটছেন। আমার নিজের কাজ রয়েছে। সেই সব সামলে ওরা কোথায় কী বললেন তা নিয়ে ভাবার সময় আমাদের নেই। পর্ণশ্রীর বাড়ি শোভনবাবু করেননি। তাই তা বিক্রি করার অধিকারও তাঁর নেই। এই বাড়ি দখল করতে এলে আইনি লড়াই হবে।’

সপ্তর্ষির দাবি, ‘রাজনীতি থেকে দূরে থাকলেও খবরে থাকার নেশা কমেনি শোভনবাবুর। তাই মাঝে মাঝেই নানা খবর বাজারে ছেড়ে প্রচারে থাকার চেষ্টা করেন।’

 

বন্ধ করুন