বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > মন্ত্রীর মেয়ের নম্বর 'দুর্নীতি' নিয়ে তথ্য আদালতে, পরদিন ইস্তফা SSC চেয়ারম্যানের
অধ্যাপক সিদ্ধার্থ মজুমদার

মন্ত্রীর মেয়ের নম্বর 'দুর্নীতি' নিয়ে তথ্য আদালতে, পরদিন ইস্তফা SSC চেয়ারম্যানের

  • SSC Chairman Siddhartha Majumder: চলতি বছরের জানুয়ারিতে কমিশনের চেয়ারম্যান পদে বসেছিলেন। সেইসময় নিয়োগ সংক্রান্ত একাধিক মামলায় ধাক্কা খাওয়ার পর ১৩ জানুয়ারি স্বচ্ছ ভাবমূর্তির অধ্যাপক সিদ্ধার্থ মজুমদারকে কমিশনের চেয়ারম্যান হিসেবে নিয়োগ করেছিল রাজ্য সরকার।

নিয়োগ বিতর্কে জর্জরিত স্কুল সার্ভিস কমিশন (এসএসসি)। তারইমধ্যে কমিশনের চেয়ারম্যানের পদ থেকে ইস্তফা দিলেন সিদ্ধার্থ মজুমদার। রাজ্য সরকারের তরফে জানানো হয়েছে, সমগ্র শিক্ষা মিশনের রাজ্য অধিকর্তা শুভ্র চক্রবর্তীকে কমিশনের চেয়ারম্যান পদে বসানো হচ্ছে।

তবে কী কারণে চার মাসের মধ্যে ইস্তফা দিলেন অধ্যাপক মজুমদার, তা স্পষ্ট নয়।  যিনি চলতি বছরের জানুয়ারিতে কমিশনের চেয়ারম্যান পদে বসেছিলেন। সেইসময় নিয়োগ সংক্রান্ত একাধিক মামলায় ধাক্কা খাওয়ার পর ১৩ জানুয়ারি স্বচ্ছ ভাবমূর্তির অধ্যাপক মজুমদারকে কমিশনের চেয়ারম্যান হিসেবে নিয়োগ করেছিল রাজ্য সরকার। 

আরও পড়ুন: Partha Chatterjee: হাজিরায় রাজি! গ্রেফতারি এড়াতে পার্থের আর্জি শুনল না ডিভিশন বেঞ্চ, অধরা রক্ষাকবচ

উল্লেখ্য, মঙ্গলবারই কলকাতা হাইকোর্টে ভার্চুয়ালি উপস্থিত হয়ে রাজ্যের শিক্ষা দফতরের প্রতিমন্ত্রী পরেশ অধিকারীর মেয়ে অঙ্কিতার নিয়োগে ‘দুর্নীতি’ নিয়ে তথ্য দেন অধ্যাপক মজুমদার। হাইকোর্টে অধ্যাপক মজুমদার জানান, অঙ্কিতা মোট নম্বর ৬১ পেয়েছিলেন। সেখানে ৭৭ নম্বর পেয়েছিলেন মামলাকারী ববিতা সরকার। অথচ ববিতা চাকরি না পেলেও অঙ্কিতা বাড়ির কাছে চাকরি পেয়ে যান। এমনকী মন্ত্রীর কন্যা পার্সোনালিটি টেস্টও দেননি বলে স্বীকার করে নেওয়া হয়। সেই পরিস্থিতিতে একাদশ-দ্বাদশ শ্রেণির শিক্ষক নিয়োগ মামলায় সিবিআই তদন্তের নির্দেশ দেয় কলকাতা হাইকোর্ট।

এসএসসি নিয়োগ দুর্নীতি মামলায় সিবিআই তদন্তে

বহাল রাখা হল সিঙ্গল বেঞ্চের রায়। মান্যতা দেওয়া হয় অবসরপ্রাপ্ত রঞ্জিত বাগ কমিটির রিপোর্টে। স্কুল সার্ভিস কমিশনের (এসএসসি) নিয়োগের দুর্নীতি মামলায় সিবিআই তদন্ত করবে বলে জানিয়ে দিয়েছে কলকাতা হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চ। সেইসঙ্গে ডিভিশন বেঞ্চ জানিয়েছে, আপাতত কমিশনের স্বপক্ষে কোনও তথ্যপ্রমাণ নেই।

বন্ধ করুন