বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > পার্থর টাকায় ফুলে ফেঁপে উঠেছে তৃণমূল, এখন ‘সম্পর্ক নেই’ বললে হবে? বিকাশরঞ্জন
বিকাশরঞ্জন ভট্টাচার্য। ফাইল ছবি

পার্থর টাকায় ফুলে ফেঁপে উঠেছে তৃণমূল, এখন ‘সম্পর্ক নেই’ বললে হবে? বিকাশরঞ্জন

  • নিয়োগ দুর্নীতি মামলা আইনজীবী বিকাশরঞ্জন ভট্টাচার্যকে ২১ জুলাইয়ের মঞ্চ থেকে আক্রমণ করেছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁর অভিযোগ ছিল, বিকাশবাবু কলকাতার মেয়র থাকাকালীন পুরসভায় বার্থ সার্টিফিকেট বিলিতে দুর্নীতি হয়েছে।

শিক্ষক নিয়োগ দুর্নীতিতে পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের ঘনিষ্ঠের বাড়ি থেকে উদ্ধার বিপুল পরিমান টাকার দায় অস্বীকার করেছে তৃণমূল। শনিবার বিকেলে সাংবাদিক বৈঠক করে একথা জানায় তৃণমূল। তৃণমূলের অবস্থানকে রবিবার কটাক্ষ করলেন সিপিএম সাংসদ তথা নিয়োগ দুর্নীতি মামলার আইনজীবী বিকাশরঞ্জন ভট্টাচার্য। তাঁর প্রশ্ন, পার্থবাবুর মাধ্যমে উপার্জিত টাকা দিয়ে তৃণমূল নিজেদের সমৃদ্ধ করল। এখন বলছে সম্পর্ক নেই?

এদিন বিকাশবাবু বলেন, ‘পার্থবাবুর মাধ্যমে উপার্জিত টাকা দিয়ে তৃণমূল নিজেদের সমৃদ্ধ করল। এখন বলছে সম্পর্ক নেই? এগুলো চূড়ান্ত ছলচাতুরি। এবং ওরা মনে করে মানুষ গাধা। আমরাও তার প্রমাণ দিই। আমরাও সেভাবে প্রতিবাদ করি না। কেন গোটা রাজ্য ভেঙে পড়েনি প্রতিবাদে সেটা তো আমি বুঝতে পারছি না। সেটা থেকেই বোঝা যায় ও বুঝে গেছে যা করব পশ্চিমবঙ্গের লোক মেনে নেবে’।

নিয়োগ দুর্নীতি মামলা আইনজীবী বিকাশরঞ্জন ভট্টাচার্যকে ২১ জুলাইয়ের মঞ্চ থেকে আক্রমণ করেছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁর অভিযোগ ছিল, বিকাশবাবু কলকাতার মেয়র থাকাকালীন পুরসভায় বার্থ সার্টিফিকেট বিলিতে দুর্নীতি হয়েছে। পালটা চ্যালেঞ্জ ছুড়ে বিকাশবাবু বলেন, নিজেকে চেয়ারম্যান করে মুখ্যমন্ত্রীকে একটা তদন্তকমিটি গড়তে বলুন। ২ সপ্তাহের মধ্যে সেই কমিটি রিপোর্ট দিক। দোষী প্রমাণিত হলে আমি জেলে যাব। নইলে মুখ্যমন্ত্রী পাগলা গারদে যাবেন। সঙ্গে এক হাঁড়ি মিষ্টি খাওয়ানোরও প্রস্তাব দিয়েছেন তিনি।

 

 

বন্ধ করুন