বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > SSC Scam: ‘হিমশৈলের চুড়া মাত্র’, SSC দুর্নীতি মামলায় পার্থ-পরেশকে মুখোমুখি বসাতে পারে CBI
SSC দুর্নীতি মামলায় পার্থ-পরেশকে মুখোমুখি বসিয়ে জেরা করতে পারে CBI

SSC Scam: ‘হিমশৈলের চুড়া মাত্র’, SSC দুর্নীতি মামলায় পার্থ-পরেশকে মুখোমুখি বসাতে পারে CBI

  • SSC Scam: গতকালও সিবিআই দফতরে ম্যারাথন জেরার মুখে পড়তে হয়েছিল পরেশ অধিকারীকে। জেরার পর তদন্তকারীদের দাবি, পরেশের মেয়ে অঙ্কিতা অধিকারীর বেআইনি নিয়োগ হিমশৈলের চুড়া মাত্র। এই আবহে ‘বৃহত্তর ষড়যন্ত্রে’র উপর থেকে পর্দা সরাতে পার্থ ও পরেশকে মুখোমুখি বসাতে চায় সিবিআই।

এবার রাজ্যের প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় এবং রাজ্যের শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী পরেশ চন্দ্র অধিকারীকে মুখোমুখি বসিয়ে জেরা করা হতে পারে বলে জানা গিয়েছে। সূত্রের খবর, এসএসসি দুর্নীতি মামলার যাবতীয় তথ্য প্রকাশ্যে আনতে দুই মন্ত্রীকে মুখোমুখি বসাতে চাইছে কেন্দ্রীয় তদন্তকারীরা। এর আগে বৃহস্পতিবার রাতের পর গতকালও সিবিআই দফতরে ম্যারাথন জেরার মুখে পড়তে হয়েছিল পরেশ অধিকারীকে। দীর্ঘ প্রায় আট ঘণ্টা ধরে জেরা করা হয় তৃণমূল নেতাকে। জেরার পর তদন্তকারীদের দাবি, পরেশের মেয়ে অঙ্কিতা অধিকারীর বেআইনি নিয়োগ হিমশৈলের চুড়া মাত্র। এই আবহে ‘বৃহত্তর ষড়যন্ত্রে’র উপর থেকে পর্দা সরাতে পার্থ ও পরেশকে মুখোমুখি বসাতে চায় সিবিআই।

সিবিআই তদন্তকারীরা মনে করছেন, অঙ্কিতার মতো আরও এরকম অনেক ক্ষেত্রেই প্রভাবশালীদের ‘হস্তক্ষেপে’ বেআইনি নিয়োগ করা হয়েছে এসএসসি মারফত। এদিকে প্রাক্তন বিচারপতি রঞ্জিতকুমার বাগের নেতৃত্বে গঠিত কমিটির রিপোর্ট অনুযায়ী, তৎকালীন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের সুপারিশে গঠিত উপদেষ্টা কমিটি বেআইনি। এই আবহে শনিবার প্রয়োজনে রাজ্যের শিক্ষাসচিব মণীশ জৈনকেও ডেকে পাঠানো হতে পারে বলে জানা গিয়েছে সিবিআই সূত্রে। 

এদিকে পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে আগামী সপ্তাহে ফের তলব করেছে সিবিআই। এই আবহে পার্থ ও পরেশকে মুখোমুখি বসিয়ে জেরা করা হতে পারে বলা জানা যাচ্ছে তদন্তকারীদের সূত্রে। উল্লেখ্য, আদালতের তথ্য অনুযায়ী, অঙ্কিতা অধিকারীর বেআইনি নিয়োগ উপদেষ্টা কমিটির সদস্যদের সুপারিশে হয়েছিল। বৃহস্পতিবার এসএসসি-র প্রাক্তন উপদেষ্টা শান্তিপ্রসাদ সিংহ-সহ ওই পাঁচ সদস্যকেও তলব করেছিল সিবিআই। শুক্রবারেও তাঁদের ডেকে পাঠানো হয়েছিল। পরবর্তীতে অঙ্কিতাকেও তলব করা হবে। এক সিবিআই কর্তার কথায়, কী ভাবে পরেশ অধিকারী তাঁর মেয়েকে বেআইনি ভাবে নিয়োগ করেছিলেন, সেই বিষয়ে সমস্ত তথ্য হাতে এসেছে। 

বন্ধ করুন