বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > SSC SLST দুর্নীতি মামলায় আদালতে হাজিরা দিলেন মেডিক্যাল সার্টিফিকেট দেওয়া চিকিৎসক

SSC SLST দুর্নীতি মামলায় আদালতে হাজিরা দিলেন মেডিক্যাল সার্টিফিকেট দেওয়া চিকিৎসক

বিক্ষোভ দেখাচ্ছেন SLST চাকরিপ্রার্থীরা। ফাইল ছবি

এদিন আদালতে হাজিরা দেন চিকিৎসক রায়। এর পর বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায় তাঁকে প্রশ্ন করেন, এই মেডিক্যাল সার্টিফিকেট কি আপনার লেখা?

SSC SLST দুর্নীতি মামলায় আদালতে চিকিৎসকের সই পরীক্ষা করে দেখলেন বিচারপতি। বৃহস্পতিবার বেনজির এই ঘটনা ঘটে বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়ের এজলাসে। তবে SSC-র প্রাক্তন উপদেষ্টা শান্তিপ্রসাদ সিনহার চিকিৎসক দেবাশিস রায় এযাত্রায় পার পেয়েছেন। শুক্রবার শান্তিপ্রসাদবাবুকে ফের আদালতে তলব করেছেন বিচারপতি।

বুধবার সশরীরে আদালতে হাজিরা দেওয়ার কথা ছিল শান্তিপ্রসাদবাবুর। কিন্তু তিনি হাজিরা দেননি। বদলে আইনজীবীকে দিয়ে একটি মেডিক্যাল সার্টিফিকেট পাঠান। দেবাশিস রায় নামে এক চিকিৎসকের দেওয়া মেডিক্যাল সার্টিফিকেটে জানানো হয়েছে, শান্তিপ্রসাদবাবুকে পিঠে ব্যাথার কারণে বিশ্রামের পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। কিন্তু এই মেডিক্যাল সার্টিফিকেট বিশ্বাসযোগ্য মনে হয়নি আদালতের। বৃহস্পতিবার চিকিৎসক দেবাশিস রায়কে আদালতে হাজিরা দেওয়ার নির্দেশ দেন বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায়।

এদিন আদালতে হাজিরা দেন চিকিৎসক রায়। এর পর বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায় তাঁকে প্রশ্ন করেন, এই মেডিক্যাল সার্টিফিকেট কি আপনার লেখা? চিকিৎসক জানান, হ্যাঁ। এর পর চিকিৎসক রায়কে সাদা কাগজে সই করে আদালতে জমা দিতে বলেন বিচারপতি। সেই সইয়ের সঙ্গে মেডিক্যাল সার্টিফিকেটের সই মিলিয়ে দেখে তার সত্যতা সম্পর্কে নিশ্চিত হন বিচারপতি।

বুধবার ক্ষুব্ধ আদালত জানিয়েছিল, চিকিৎসক যদি বলেন শান্তিপ্রসাদবাবু অসুস্থ তাহলে তাঁকে অ্যাম্বুল্যান্স পাঠিয়ে গ্রিন করিডর করে আদালতে আনার ব্যবস্থা করব। তবে এদিন তেমন কিছু হয়নি। শুক্রবার ফের শান্তিপ্রসাদ সিনহাকে হাজিরার নির্দেশ দিয়েছে আদালত।

মুর্শিদাবাদে SSC-র নবম দশম শ্রেণির নিয়োগে দুর্নীতি হয়েছে বলে অভিযোগ করে মামলা হয়েছে কলকাতা হাইকোর্টে। জেলায় ৬ জন ব্যক্তি বেআইনিভাবে গণিতের শিক্ষক হিসাবে নিয়োগ পেয়েছেন বলে দাবি আবেদনকারীদের। এদের অনেকের নাম প্যানেলে নেই। মামলার শুনানিতে আদালতের পর্যবেক্ষণ, এই দুর্নীতির শিকড় অনেক গভীরে। সবার শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে।

 

বন্ধ করুন